বঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণিঝড় ফেনি

image_titleবাংলাদেশের মতোই গরমে অতিষ্ট ভারতেও পশ্চিমবঙ্গও। এরইমধ্যে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে তৈরি হয়েছে নিম্নচাপ। সেই নিম্নচাপই ঘূর্ণাবর্তে পরিণত হতে পারে। তারপর তা ঘূর্ণিঝড় ‘ফেনি’ হয়ে আছড়ে পড়তে পারে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে।


ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর ইতিমধ্যেই সতর্কতা দিয়েছে। ফেনি ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।
অবশ্য একইসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে গরম কমছে না বলেও পূর্বাভাস দেয়া হয়েছে। পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, তীব্র গরমে পুড়বে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলো। দিনের তাপমাত্রা দুই থেকে চার ডিগ্রি পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে। বিশেষ করে কলকাতার তাপমাত্রাও পৌঁছতে পারে ৩৯ ডিগ্রির কাছাকাছি। অর্থাৎ ২৮ তারিখ যখন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের ঘূর্ণিঝড় ফেনির প্রভাবে দক্ষিণ ভারতে ঝড়-বৃষ্টি হবে তখন বঙ্গোপসাগরের অন্যদিকে মিলবে শুধুই গরম।
২৫ এপ্রিল থেকে ১ মে পর্যন্ত ফেনির প্রভাব থাকবে। তামিলনাড়ু উপকূল থেকে মিয়ানমার পর্যন্ত এর কম-বেশি প্রভাব পড়বে। সমুদ্রপৃষ্ঠের তাপমাত্রা ৩০ ডিগ্রির ওপরে। সেটাই এই ঝড়ের অনুঘটক হিসাবে কাজ করবে। ফলে শক্তিশালী আকার নেবে ফেনি। তামিলনাড়ু, পণ্ডীচেরিতে ঝড়ের গতি ১০০ কিলোমিটার প্রতিঘণ্টা ছাড়াতে পারে। সর্বোচ্চ ১১৫ কিলোমিটার হতে পারে ঝড়ের গতিবেগ।
এনএফ/এমএস