তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচেও পাত্তা পেল না পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার সিরিজ জয়

image_titleঅস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা দুই ওয়ানডেতে পাত্তাই পায়নি পাকিস্তান। নিজেদের ঘরের মাটিতে এবার তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচে হেরে সিরিজ হারলো পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া ২৬৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৮৭ রানে অলআউট হয়েছে পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দিন একটুর জন্য হ্যাটট্রিক সেঞ্চুরি মিস করেছেন অজি অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।

মাত্র ১০ রানের জন্য হলো না সেঞ্চুরির ‘হ্যাটট্রিক’টা।টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই অস্বস্তিতে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। ২০ রানের মধ্যে তারা হারিয়ে বসে উসমান খাজা (০) আর শন মার্শকে (১৪)। তৃতীয় উইকেটে পিটার হ্যান্ডসকম্বকে নিয়ে ৮৪ রানের জুটি ফিঞ্চের।৪৩ বলে ৪৭ রানের ইনিংস খেলে হ্যান্ডসকম্ব বোল্ড হন হারিস সোহেলের বলে। মার্কাস স্টয়নিস ১০ রানেই ইমাদ ওয়াসিমের বলে বোল্ড। এরপর সেঞ্চুরির দোড়গোড়ায় দাঁড়ানো ফিঞ্চও হতাশা নিয়ে সাজঘরের পথ ধরলে কিছুটা বিপদে পড়ে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। ১৩৬ বলে ৫ চার আর ১ ছক্কায় অজি অধিনায়ক ৯০ রানে হন ইয়াসির শাহর শিকার।এরপর ঝড় তুলেন ম্যাক্সওয়েল। পাকিস্তানি বোলারদের তেড়েফুরে মারতে আরম্ভ করেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। অ্যালেক্স কারের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে ম্যাক্সওয়েল রানআউটে কাটা না পড়লে পাকিস্তানের বিপদ আরও বাড়তো। ৫৫ বলে ৮ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় গড়া তার ৭১ রানের ইনিংসটি শেষ পর্যন্ত রানআউটে থামলেও অস্ট্রেলিয়াকে বড় বিপদ থেকে বাঁচিয়ে দিয়েছে। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে তারা তুলে ২৬৬ রান।পাকিস্তানের পক্ষে একটি করে উইকেট নেন উসমান সিনওয়ারি, জুনায়েদ খান, ইয়াসির শাহ, ইমাদ ওয়াসিম আর হারিস সোহেল। পিএসএলে সাড়া জাগিয়ে জাতীয় দলে আসা তরুণ পেসার মোহাম্মদ হাসনাইন ৫ ওভারে ৫০ রান খরচ করেও ছিলেন উইকেটশূন্য।জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৬ রানের মধ্যে টপ অর্ডারের তিনটি উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে পাকিস্তান।

ওপেনার সান মাকসুদ ২ হ্যারিস সোহেল ১, এবং মোহাম্মদ রেজওয়ান শূন্য রানেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তিনটি উইকেট তুলে দেন ফাস্ট বলার প্যাট কামিন্স। এরপর কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ইমাম উল হক এবং শোহেব মালেক।দলীয় ৭৫ রানের মাথায় ৪৬ রান করে আউট হয়ে ফেরেন ইমামুল উল হক। বেশি সময় স্থায়ী হতে পারেননি শোহেব মালিক। ৩২ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। তবে ঘুরে দাঁড়ানোর আভাস দেন ওমর আকমল এবং ইমাদ ওয়াসিম। কিন্তু ওমর আকমল ৩৬ এবং ইমাদ ওয়াসিম ৪৩ রানে আউট হলে ১৮৬ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।।