‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে পুলিশের চেষ্টার ঘাটতি নেই’

image_titleসড়কের শৃঙ্খলা ফেরাতে পুলিশের প্রচেষ্টা ও আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশসড়কের শৃঙ্খলা ফেরাতে পুলিশের প্রচেষ্টা ও আন্তরিকতার কোনো ঘাটতি নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। সকলকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সবাইকে আইন মানতে হবে। ট্রাফিক আইন না মানলে আমরা মামলা ও জরিমানা করছি। তবে মামলা বা জরিমানাই শেষ কথা নয়।

সবাইকে সচেতন হতে হবে।
আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেল ক্রসিংয়ে ‘ট্রাফিক শৃঙ্খলা সপ্তাহ’ উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন।
ডিএমপি কমিশনার বলেন, ঢাকা মহানগরীর বিভিন্ন রাস্তায় চলাচলকারী যাত্রীবাহী বাসগুলো ৬টি কোম্পানির মাধ্যমে চলবে। এর পদ্ধতি ও কৌশল কি হবে তা নিয়ে যাছাই বাছাই চলছে। এটি বাস্তবায়নের ফলে সড়কে প্রতিযোগিতামূলক গাড়ি চালানোর প্রবণতা কমবে এবং দুর্ঘটনা হ্রাস পাবে। এই কার্যক্রমের প্রক্রিয়া ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।
আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, সমাজের দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গকে অনুরোধ করব, আপনারা আইন মানুন অন্যকে আইন মানতে উৎসাহিত করুন। সবাইকে ট্রাফিক পুলিশকে সহযোগিতা করতে হবে, ট্রাফিক আইন মানতে হবে।
নগরবাসীকে আহ্বান জানিয়ে কমিশনার বলেন, আসুন আমরা সবাই ট্রাফিক আইন মানি অপরকে আইন মানতে উদ্বুদ্ধ করি। ট্রাফিক আইন প্রয়োগে পুলিশকে সহযোগিতা করুন।
এর পরপরই গণপরিবহনের যাত্রীদের মাঝে ফুল ও ট্রাফিক সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করা হয়। ঢাকা মহানগরীর জনসাধারণকে ট্রাফিক আইন মেনে চলতে উদ্বুদ্ধকরণ এবং ট্রাফিক শৃঙ্খলার উন্নতিকল্পে আজ থেকে ট্রাফিক শৃঙ্খলা সপ্তাহ শুরু করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ’র ট্রাফিক বিভাগ। চলবে ২৩ মার্চ পর্যন্ত।