মঙ্গলবার অপারেশন মোশাররফ রুবেলের

image_titleউন্নত চিকিৎসার জন্য গত বৃহস্পতিবার সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে গিয়েছেন ব্রেইন টিউমারে বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটার মোশাররফ হোসেন রুবেল। যাওয়ার আগে জানিয়েছিলেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারবেন পরবর্তী পদক্ষেপ কী হবে।
একদিন বিরতি দিয়ে শনিবারই তিনি জেনে গেছেন তিনদিন পর যেতে হবে চিকিৎসকের টেবিলে, করাতে হবে টিউমারের অপারেশন। যা করানো হবে আগামী মঙ্গলবার।

সেজন্য দেশে তার সকল শ্রদ্ধেয়ভাজন, সুহৃদ, ভক্ত, শুভানুধ্যায়ীদের কাছে দোয়া চেয়েছেন ৩৭ বছর বয়সী রুবেল।
আজ (শনিবার) সকালে এ প্রতিবেদকের সঙ্গে মুঠোফোন বার্তায় কুশল বিনিময় শেষে রুবেল জানান, ‘মঙ্গলবার অপারেশন হবে। ডাক্তার বেশি সময় ব্যয় করা ঠিক হবে না বলেছেন। আমার জন্য দোয়া করবেন। দয়া করে সবাইকে বলবেন যেনো আমার জন্য দোয়া করে।’
এর আগে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার গত বুধবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সকল শুভাকাঙ্ক্ষীদের প্রতি ধন্যবাদ, কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানিয়ে বিশদ এক বার্তা দিয়েছেন মোশাররফ।
সেখানে তিনি লিখেন, ‘সবাইকে জানাতে চাই আমি আগামী বৃহস্পতিবার চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যাচ্ছি ইনশা’আল্লাহ্‌। আমি সবার ফোন কল ধরতে পারছি না। এজন্য সবার কাছে দুঃখিত। শুধু একটা কথা বলতে চাই আমি যে সবার কাছ থেকে দোয়া আর ভালোবাসা পেয়েছি, সত্যিই আমি আপ্লুত। চিরঋণী হয়ে গেলা। কিভাবে এই ঋণ শোধ করবো জানি না। শুধু ধন্যবাদ দিতে চাই।’
ব্রেইন টিউমারের চিকিৎসা, অপারেশন ও অন্যান্য আনুসাঙ্গিক বিষয় মিলে মোটা অংকের অর্থ লাগার কথা। কত টাকা খরচ হতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে মোশাররফ রুবেল জাগোনিউজকে বলেছিলেন, ‘এটা আসলে অপারেশনের পর বায়োপসি করলে জানা ও বোঝা যাবে। তবে শুধু মস্তিষ্কের অপারেশনে ব্যয় হবে ২০-২৫ লাখ টাকা।

এর বাইরে কেমো দেয়া, সিঙ্গাপুরে অনন্ত তিন সপ্তাহ থাকা ও আনুসাঙ্গিক খরচাপাতি সহ ৪০ লাখ টাকার মত লাগবে বলে ধারণা করছি। এখন চিকিৎসা শুরু হলে এবং চিকিৎসার ধরনই বলে দেবে আসলে কত টাকা খরচ হবে।’
এদিকে বাংলাদেশ জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা ও তামিম ইকবাল ছাড়াও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে সাহায্য-সহযোগিতার আশ্বাস পেয়েছেন রুবেল।
এআরবি/এসএএস/এমএস