বেইসবল ব্যাট হাতে আলাপ করতে তিনি গুগলে

image_titleগাড়িতে চারটি বেইজবল ব্যাট নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মেইন অঙ্গরাজ্য থেকে ৩৩০০ মাইল পথ পাড়ি দিয়ে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয়ে যান লং। পরবর্তীতে বেইজবল ব্যাটগুলো জব্দ করে পুলিশ।ইউটিউবারের আত্মীয় পরে স্বীকার করেন যে, ভিডিও এবং অ্যাকাউন্ট ইউটিউব সরায়নি, তার স্ত্রী সরিয়েছে। তার মানসিক অবস্থা বিবেচনা করে তিনি অসংলগ্ন এবং উদ্ভট ভিডিওগুলো মুছে ফেলেছেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আইএএনএস-এর প্রতিবেদনে বলা হয়, লং অনেকদিন ধরেই মানসিকভাবে অসুস্থ বলে জানিয়েছেন তার আত্মীয়রা।প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, লং আক্রমণাত্মক হয়েছেন কারণ, তিনি মনে করেন তার ওই ভিডিওগুলোর কারণে ইউটিউব থেকে তিনি লাখ লাখ ডলার পাবেন। অর্থপ্রপ্তির স্বপ্নে বিভোর লাং একসময় খেয়াল করেন প্ল্যাটফর্মে তার ভিডিওগুলো নেই।এদিকে লংয়ের স্ত্রী তার উন্মাদ স্বামীকে বোঝান যে, সম্ভবত গুগল বা ফেইসবুক এটি সরিয়ে ফেলেছে।এ পার্যায়ে লং সিদ্ধান্ত নেন যে গুগলের নির্বাহী কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার এ কিষয়ে কথা বলতে হবে।মাউন্টেইন ভিউ পুলিশের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বাজফিডের প্রতিবেদনে বলা হয়, অপিরিচিত মানুষের সামনে সহিংসতার হুমকি দিয়েছেন লং, তার ইউটিউব চ্যানেল তিনি যেভাবে চেয়েছেন সেভাবে না চললে সহিংসতা ঘটনা হবে। আগের বছর এপ্রিল মাসে প্রতিষ্ঠানের স্যান ব্রুনো প্রধান কার্যালয়ে গুলি চালিয়েছেন স্যান ডিয়েগোর বাসিন্দা নাসিম আগদাম। তার দাবি ছিল প্রো-ভিগান এবং প্রাণি অধিকার নিয়ে তার ভিডিওগুলো ইউটিউব অন্যায্যভাবে পর্যালোচনা ও সেন্সর করেছে। এ ঘটনায় তিন ব্যক্তিকে আহত করে নিজে আত্মহত্যা করেন আগদাম।।