শিশুরা যখন–তখন এসে বলবে, ‘মা, একটা কিছু খাব।’ মায়েরাও তাই চেষ্টা করেন শিশুর জন্য মজার মজার খাবার তৈরি করতে। শিশুদের খাবারে পুষ্টির সঙ্গে থাকতে হয় মজার ব্যাপারটাও। তেমন কিছু রেসিপি দিয়েছেন ফারাহ্‌ সুবর্ণা

মগ কেক

উপকরণ

ময়দা ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, কোকো পাউডার আধা কাপ, বেকিং পাউডার আধা চা–চামচ, তরল দুধ পৌনে ১ কাপ, তেল বা গলানো মাখন পৌনে ১ কাপ, লবণ ১ চিমটি, ডিম ২টি, ভ্যানিলা অ্যাসেন্স ৩–৪ ফোঁটা, চকলেট চিপস ৪ টেবিল চামচ, আইসিং সুগার কেকের ওপরে ছিটানোর জন্য ও ফলমূল সাজানোর জন্য।

প্রণালি

চকলেট চিপস, আইসিং সুগার আর ফ্রেশ ফ্রুটস ছাড়া বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে মসৃণ মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার তা পছন্দমতো কাপে ঢেলে ওপরে চকলেট চিপস ছড়িয়ে দিয়ে মাইক্রো ওয়েভ ওভেনে দেড় মিনিট বেক করুন। একটা টুথপিক ঢুকিয়ে দেখুন বেক হয়েছে কি না। নামিয়ে নিয়ে ওপরে আইসিং সুগার ছড়িয়ে স্ট্রবেরি, চেরি ইত্যাদি টাইপের ফল দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে। ঘরে হুইপড ক্রিম থাকলে আইসিং সুগারের বদলে তা-ও গার্নিশিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

মিনি পিৎজা

উপকরণ

ময়দা ২ কাপ, লবণ সিকি চা–চামচ, চিনি ১ চা–চামচ, ড্রাই ইস্ট দেড় চা–চামচ, হালকা গরম পানি পৌনে ১ কাপ, জলপাই তেল বা সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ, টমেটো পেস্ট বা সস প্রয়োজনমতো, গ্রেটেড মোজারেলা চিজ প্রয়োজনমতো এবং টপিংয়ের জন্য পাতলা করে কাটা মাশরুম, মুরগির সেদ্ধ মাংস, বিফ সালামি, পেঁয়াজ, আনারস, টমেটো ইত্যাদি।

প্রণালি

রম পানিতে ইস্ট ১০ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখতে হবে। ময়দা, লবণ, চিনি, তেল একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে তার সঙ্গে গরম পানিতে ভেজানো ইস্ট ঢেলে দিয়ে ৮-১০ মিনিট ধরে ভালোমতো মেখে নরম খামির তৈরি করুন। হালকা করে তেল মেখে আধা ঘণ্টার জন্য চুলার পাশে বা কোনো গরম জায়গায় ঢেকে রেখে দিন। নির্দিষ্ট সময় পর আবার খামিরটা ভালো করে মথে নিয়ে সমান আকারের দুইটা বল বানিয়ে একটা বল নিয়ে অল্প ময়দা ছিটিয়ে রুটির আকারে বেলে গ্লাস বা ছোট বাটির সাহায্যে গোল আকারে কেটে নিতে হবে। ওভেনের ট্রেতে বেকিং পেপার বিছিয়ে তার ওপরে সেই ছোট রুটিগুলো বসিয়ে তা কাঁটা চামচ দিয়ে হালকা করে একটু ফুটো করে তার ওপরে টমেটো পেস্ট ছড়িয়ে দিয়ে তার ওপরে গ্রেট করা চিজ দিয়ে নিজের পছন্দমতো টপিং দিয়ে ১৮০ ডিগ্রিতে প্রি–হিটেড ওভেনে ৮–১০ মিনিট বেক করে নামিয়ে নিন।

পটেটো স্মাইলি

উপকরণ

াঝারি আকারের আলু ৪টি, সুজি ৪ চা–চামচ, কর্নফ্লাওয়ার ৪ চা–চামচ, লবণ স্বাদমতো ও ভাজার জন্য তেল।

প্রণালি

আস্ত আলু খোসাসহ সেদ্ধ করে নিন। খুব বেশি সেদ্ধ করা যাবে না, তাতে আলুর ভেতরে পানি ঢুকে যাবে। খোসা ছাড়িয়ে একটু ঠান্ডা করে গ্রেটারে মিহি করে গ্রেট করে নিতে হবে। তারপর ভর্তা করে নিন। এই আলুর সঙ্গে সুজি আর কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে মসৃণ ডো বানিয়ে নিন। স্বাদমতো লবণ মিশিয়ে আবার ভালো করে মাখুন। রুটি বানানোর পিঁড়িতে কর্নফ্লাওয়ার মেখে মাখানো আলু থেকে বল বানিয়ে নিন। তার গায়ে একটু তেল বা গলানো মাখন মাখিয়ে নিতে হবে। একটু মোটা করে রুটির মতো বেলে নিন। তারপর কোনো বয়ামের ঢাকনা দিয়ে ছোট গোল গোল আকারে কেটে নিয়ে প্লাস্টিকের পাইপের (স্ট্র) সাহায্যে দুটো ফুটো করে চোখ বানিয়ে নিতে হবে। একটা চামচ দিয়ে দুই চোখের মাঝ বরাবর নিচে খানিকটা কেটে হাসি মুখের মতো তৈরি করে নিন। তেল ভালোভাবে গরম করে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে তুলে নিন। এই পটেটো স্মাইলি (না ভেজে) জিপ লক ব্যাগে ভরে ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণও করা যাবে।

কুইক পাস্তা

উপকরণ
ম্যাকারনি দেড় কাপ, স্লাইস করা মাশরুম অথবা সেদ্ধ মাংস আধা কাপ, ক্যাপসিকাম, গাজর, সুইট কর্ন মিলে আধা কাপ (ইচ্ছা), রসুনকুচি ১ চা–চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া স্বাদমতো, টমেটো সস ২ টেবিল চামচ, ময়দা ১ টেবিল চামচ, মাখন ১ টেবিল চামচ, তরল দুধ দেড় কাপ, পারমেজান চিজ আধা কাপ, তেল ২ টেবিল চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি
লবণ দিয়ে পানি ফুটিয়ে তাতে ম্যাকারনি ছেড়ে দিয়ে হালকা হাতে নেড়ে সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ম্যাকারনি সেদ্ধ হয়ে গেলে পানি ঝরিয়ে তাতে পানি দিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। প্যানে তেল গরম করে তাতে রসুনকুচি হালকা করে ভেজে তাতে কেটে রাখা মাশরুম বা সেদ্ধ মাংস, লবণ আর গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট ভেজে নিন। টমেটো সস মিশিয়ে সেদ্ধ করে রাখা ম্যাকারনি দিয়ে নেড়েচেড়ে চুলা থেকে নামিয়ে রাখুন। এই পর্যায়ে পাস্তা কিন্তু খাওয়ার জন্য একেবারেই তৈরি। কিন্তু পাস্তাকে আরও মুখরোচক করার জন্য অপর একটা পাত্রে হোয়াইট সস তৈরি করে নিতে হবে। ১ টেবিল চামচ মাখন গলিয়ে তাতে ১ টেবিল চামচ ময়দা মিশিয়ে অল্প অল্প করে তরল দুধ মিশিয়ে ঘন ঘন নাড়তে হবে, যাতে দলা না বেঁধে যায়। তারপর চিজ মিশিয়ে তাতে রান্না করে রাখা পাস্তার মধ্যে হালকা হাতে মিশিয়ে নিলেই চিজি পাস্তা তৈরি।

ঝটপট মোগলাই পরোটা

উপকরণ
য়দা দেড় কাপ, ডিম ২টি, পেঁয়াজকুচি ৬ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচকুচি স্বাদমতো, লবণ স্বাদমতো, তেল ভাজা ও ময়ানের জন্য এবং পানি প্রয়োজনমতো।

প্রণালি
য়দাতে লবণ, একটু তেল ও প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে নরম খামির তৈরি করে ১০ মিনিটের জন্য রেখে দিতে হবে। এরই মধ্যে একটা বাটিতে পেঁয়াজকুচি, মরিচকুচি, লবণ হালকা হাতে মেখে তার মধ্যে ডিম ভেঙে ফেটিয়ে রাখতে হবে। চাইলে এর সঙ্গে ধনেপাতার কুচিও দিতে পারেন। ময়ান দেওয়া ময়দা থেকে রুটি বানানোর মতো করে লেচি কেটে বল বানিয়ে তা দিয়ে পাতলা করে রুটি বেলে নিতে হবে। তারপর রুটির ঠিক মাঝ বরাবর ২-৩ চা–চামচ ডিমের মিশ্রণ দিয়ে সাবধানে মোগলাই পরোটার মতো ভাজ করে নিন। তারপর প্যানে বেশি করে তেল গরম করে তাতে মাঝারি আঁচে লালচে করে ভেজে উঠিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন।

">

যখন–তখন টিফিন

image_title

শিশুরা যখন–তখন এসে বলবে, ‘মা, একটা কিছু খাব।’ মায়েরাও তাই চেষ্টা করেন শিশুর জন্য মজার মজার খাবার তৈরি করতে। শিশুদের খাবারে পুষ্টির সঙ্গে থাকতে হয় মজার ব্যাপারটাও। তেমন কিছু রেসিপি দিয়েছেন ফারাহ্‌ সুবর্ণা

মগ কেক

উপকরণ

ময়দা ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, কোকো পাউডার আধা কাপ, বেকিং পাউডার আধা চা–চামচ, তরল দুধ পৌনে ১ কাপ, তেল বা গলানো মাখন পৌনে ১ কাপ, লবণ ১ চিমটি, ডিম ২টি, ভ্যানিলা অ্যাসেন্স ৩–৪ ফোঁটা, চকলেট চিপস ৪ টেবিল চামচ, আইসিং সুগার কেকের ওপরে ছিটানোর জন্য ও ফলমূল সাজানোর জন্য।

প্রণালি

চকলেট চিপস, আইসিং সুগার আর ফ্রেশ ফ্রুটস ছাড়া বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে মসৃণ মিশ্রণ তৈরি করে নিন। এবার তা পছন্দমতো কাপে ঢেলে ওপরে চকলেট চিপস ছড়িয়ে দিয়ে মাইক্রো ওয়েভ ওভেনে দেড় মিনিট বেক করুন। একটা টুথপিক ঢুকিয়ে দেখুন বেক হয়েছে কি না। নামিয়ে নিয়ে ওপরে আইসিং সুগার ছড়িয়ে স্ট্রবেরি, চেরি ইত্যাদি টাইপের ফল দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে। ঘরে হুইপড ক্রিম থাকলে আইসিং সুগারের বদলে তা-ও গার্নিশিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

মিনি পিৎজা

উপকরণ

ময়দা ২ কাপ, লবণ সিকি চা–চামচ, চিনি ১ চা–চামচ, ড্রাই ইস্ট দেড় চা–চামচ, হালকা গরম পানি পৌনে ১ কাপ, জলপাই তেল বা সয়াবিন তেল ১ টেবিল চামচ, টমেটো পেস্ট বা সস প্রয়োজনমতো, গ্রেটেড মোজারেলা চিজ প্রয়োজনমতো এবং টপিংয়ের জন্য পাতলা করে কাটা মাশরুম, মুরগির সেদ্ধ মাংস, বিফ সালামি, পেঁয়াজ, আনারস, টমেটো ইত্যাদি।

প্রণালি

রম পানিতে ইস্ট ১০ মিনিটের জন্য ভিজিয়ে রাখতে হবে। ময়দা, লবণ, চিনি, তেল একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে তার সঙ্গে গরম পানিতে ভেজানো ইস্ট ঢেলে দিয়ে ৮-১০ মিনিট ধরে ভালোমতো মেখে নরম খামির তৈরি করুন। হালকা করে তেল মেখে আধা ঘণ্টার জন্য চুলার পাশে বা কোনো গরম জায়গায় ঢেকে রেখে দিন। নির্দিষ্ট সময় পর আবার খামিরটা ভালো করে মথে নিয়ে সমান আকারের দুইটা বল বানিয়ে একটা বল নিয়ে অল্প ময়দা ছিটিয়ে রুটির আকারে বেলে গ্লাস বা ছোট বাটির সাহায্যে গোল আকারে কেটে নিতে হবে। ওভেনের ট্রেতে বেকিং পেপার বিছিয়ে তার ওপরে সেই ছোট রুটিগুলো বসিয়ে তা কাঁটা চামচ দিয়ে হালকা করে একটু ফুটো করে তার ওপরে টমেটো পেস্ট ছড়িয়ে দিয়ে তার ওপরে গ্রেট করা চিজ দিয়ে নিজের পছন্দমতো টপিং দিয়ে ১৮০ ডিগ্রিতে প্রি–হিটেড ওভেনে ৮–১০ মিনিট বেক করে নামিয়ে নিন।

পটেটো স্মাইলি

উপকরণ

াঝারি আকারের আলু ৪টি, সুজি ৪ চা–চামচ, কর্নফ্লাওয়ার ৪ চা–চামচ, লবণ স্বাদমতো ও ভাজার জন্য তেল।

প্রণালি

আস্ত আলু খোসাসহ সেদ্ধ করে নিন। খুব বেশি সেদ্ধ করা যাবে না, তাতে আলুর ভেতরে পানি ঢুকে যাবে। খোসা ছাড়িয়ে একটু ঠান্ডা করে গ্রেটারে মিহি করে গ্রেট করে নিতে হবে। তারপর ভর্তা করে নিন।

এই আলুর সঙ্গে সুজি আর কর্নফ্লাওয়ার মিশিয়ে মসৃণ ডো বানিয়ে নিন। স্বাদমতো লবণ মিশিয়ে আবার ভালো করে মাখুন। রুটি বানানোর পিঁড়িতে কর্নফ্লাওয়ার মেখে মাখানো আলু থেকে বল বানিয়ে নিন। তার গায়ে একটু তেল বা গলানো মাখন মাখিয়ে নিতে হবে। একটু মোটা করে রুটির মতো বেলে নিন। তারপর কোনো বয়ামের ঢাকনা দিয়ে ছোট গোল গোল আকারে কেটে নিয়ে প্লাস্টিকের পাইপের (স্ট্র) সাহায্যে দুটো ফুটো করে চোখ বানিয়ে নিতে হবে। একটা চামচ দিয়ে দুই চোখের মাঝ বরাবর নিচে খানিকটা কেটে হাসি মুখের মতো তৈরি করে নিন। তেল ভালোভাবে গরম করে ডুবো তেলে সোনালি করে ভেজে তুলে নিন। এই পটেটো স্মাইলি (না ভেজে) জিপ লক ব্যাগে ভরে ডিপ ফ্রিজে সংরক্ষণও করা যাবে।

কুইক পাস্তা

উপকরণ
ম্যাকারনি দেড় কাপ, স্লাইস করা মাশরুম অথবা সেদ্ধ মাংস আধা কাপ, ক্যাপসিকাম, গাজর, সুইট কর্ন মিলে আধা কাপ (ইচ্ছা), রসুনকুচি ১ চা–চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া স্বাদমতো, টমেটো সস ২ টেবিল চামচ, ময়দা ১ টেবিল চামচ, মাখন ১ টেবিল চামচ, তরল দুধ দেড় কাপ, পারমেজান চিজ আধা কাপ, তেল ২ টেবিল চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি
লবণ দিয়ে পানি ফুটিয়ে তাতে ম্যাকারনি ছেড়ে দিয়ে হালকা হাতে নেড়ে সেদ্ধ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ম্যাকারনি সেদ্ধ হয়ে গেলে পানি ঝরিয়ে তাতে পানি দিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। প্যানে তেল গরম করে তাতে রসুনকুচি হালকা করে ভেজে তাতে কেটে রাখা মাশরুম বা সেদ্ধ মাংস, লবণ আর গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে দুই থেকে তিন মিনিট ভেজে নিন। টমেটো সস মিশিয়ে সেদ্ধ করে রাখা ম্যাকারনি দিয়ে নেড়েচেড়ে চুলা থেকে নামিয়ে রাখুন। এই পর্যায়ে পাস্তা কিন্তু খাওয়ার জন্য একেবারেই তৈরি। কিন্তু পাস্তাকে আরও মুখরোচক করার জন্য অপর একটা পাত্রে হোয়াইট সস তৈরি করে নিতে হবে। ১ টেবিল চামচ মাখন গলিয়ে তাতে ১ টেবিল চামচ ময়দা মিশিয়ে অল্প অল্প করে তরল দুধ মিশিয়ে ঘন ঘন নাড়তে হবে, যাতে দলা না বেঁধে যায়। তারপর চিজ মিশিয়ে তাতে রান্না করে রাখা পাস্তার মধ্যে হালকা হাতে মিশিয়ে নিলেই চিজি পাস্তা তৈরি।

ঝটপট মোগলাই পরোটা

উপকরণ
য়দা দেড় কাপ, ডিম ২টি, পেঁয়াজকুচি ৬ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচকুচি স্বাদমতো, লবণ স্বাদমতো, তেল ভাজা ও ময়ানের জন্য এবং পানি প্রয়োজনমতো।

প্রণালি
য়দাতে লবণ, একটু তেল ও প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে নরম খামির তৈরি করে ১০ মিনিটের জন্য রেখে দিতে হবে। এরই মধ্যে একটা বাটিতে পেঁয়াজকুচি, মরিচকুচি, লবণ হালকা হাতে মেখে তার মধ্যে ডিম ভেঙে ফেটিয়ে রাখতে হবে। চাইলে এর সঙ্গে ধনেপাতার কুচিও দিতে পারেন। ময়ান দেওয়া ময়দা থেকে রুটি বানানোর মতো করে লেচি কেটে বল বানিয়ে তা দিয়ে পাতলা করে রুটি বেলে নিতে হবে। তারপর রুটির ঠিক মাঝ বরাবর ২-৩ চা–চামচ ডিমের মিশ্রণ দিয়ে সাবধানে মোগলাই পরোটার মতো ভাজ করে নিন। তারপর প্যানে বেশি করে তেল গরম করে তাতে মাঝারি আঁচে লালচে করে ভেজে উঠিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন।