সোয়াইন ফ্লু ঠেকাতে তৎপর যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা-মেক্সিকো

image_titleচীনের শুকরের পাল এমনকী ইউরোপেরও কয়েকটি দেশে শুকরের পালে সোয়াইন ফ্লু ছড়িয়ে পড়েছে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের কৃষিমন্ত্রী সনি পারডু।আফ্রিকান এ সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত হয়ে মাত্র দু দিনেই শুকরের মৃত্যু হতে পারে। চীনে বিশ্বের সবচেয়ে বড় শুকরের পালে গতবছরের অগাস্ট থেকে ২৭ টি প্রদেশ এবং অঞ্চলে ১শ রও বেশি শুকর এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।চীনের প্রতিবেশী দেশ ভিয়েতনামেও সোয়াইন ফ্লু ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে।

পূর্ব ইউরোপে এবং বেলজিয়ামেও বন্য শুকরের মধ্যে এ ভাইরাস পাওয়া গেছে। যুক্তরাষ্ট্রেও তা ছড়িয়ে পড়লে ব্যাহত হবে শত শত কোটি ডলারের রপ্তানি।যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর এবং দক্ষিণে মেক্সিকো এবং কানাডার সীমান্ত থাকার কারণে তিন দেশ মিলে একযোগেই সোয়াইন ফ্লুর বিস্তার ঠেকানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।সোয়াইন ফ্লু মানুষের জন্য ক্ষতিকারক না হলেও রোগটির কোনো টিকা নেই এবং তা নানাভাবেই মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হতে পারে।প্রাণীর সংস্পর্শে আসা, ভাইরাসদূষণযুক্ত খাবার খাওয়া, সোয়াইন ফ্লু আক্রান্ত একজন থেকে অপরজনে রোগ সংক্রমণ কিংবা একজায়গা থেকে মানুষ অন্যজায়গায় যাওয়ার মাধ্যমেও এ রোগ ছড়িয়ে পড়তে পারে।।