জিয়ার নামের উপর ছাত্রলীগের কালি, বিএনপি নেতাদের ক্ষোভ

image_titleচট্টগ্রামের পুরনো সার্কিট হাউসে অবস্থিত জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পরিবর্তন করে ‘মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর’ নামকরণচট্টগ্রামের পুরনো সার্কিট হাউসে অবস্থিত জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের নাম পরিবর্তন করে ‘মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর’ নামকরণ করার দাবিতে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের ছাত্র ফোরাম নামে একটি সংগঠনের ব্যানারে মানববন্ধন করেছে ছাত্রলীগ। মানববন্ধন শেষে জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের সাইনবোর্ড কালি দিয়ে মুছে দিয়েছে তারা।
মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে নগরের কাজীর দেউড়ী এলাকায় জিয়া স্মৃতি জাদুঘরের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
নগর যুবদল সভাপতি মোশারফ হোসেন দীপ্তি বলেন, যার কাজ তাকেই করতে হবে।

জিয়াউর রহমানের মতন একজন দেশপ্রেমিক রাষ্ট্রনায়কের নাম মানুষের হৃদয় থেকে কখনও মুছতে পারবে না। ছাত্রলীগ এখানে লাঠিয়াল বাহিনীর পরিচয় দিয়েছে।
এদিকে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের ছাত্র ফোরামের এই মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক কার্যনির্বাহী সদস্য আবদুর রহিম শামীম ও নগর ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক রাহুল দাশ। বক্তব্য রাখেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফফর আহমদ, সহকারী কমান্ডার সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, মো. হেলাল উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা প্রশান্ত সিংহ, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের সরওয়ার আলম মনি, ছাত্রলীগ নেতা একরামুল হক রাসেল, কামরুল হুদা পাবেল প্রমুখ।
কমান্ডার মোজাফফর আহমদ বলেন, একজন বিতর্কিত মানুষের নামে কখনও স্মৃতি জাদুঘর হতে পারে না। স্বাধীনতা দিবসের আগে এ জাদুঘরের নাম পরিবর্তন করে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর নামকরণ করতে হবে।
বিডি প্রতিদিন/হিমেল