দাঁত হলুদ হওয়ার ৭ কারণ

image_titleসুন্দর সাদা দাঁত ভালোবাসেন সবাই। দাগ পড়া হলদেটে দাঁত একজন মানুষের ব্যক্তিত্বের জন্য মারাত্বক ক্ষতিকর। আবার দৈনন্দিন ব্যবহার্য পানিতে ফ্লুরাইড য়ের মাত্রা বেশি হওয়াও দাঁত হলুদ হওয়ার কারণ হতে পারে।এছাড়া চা ও কফির জন্যও দাঁত হলদে হতে পারে।

তবে আরও কিছু কারণ রয়েছে। যা জানানো হল স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে।সিট্রাস বা অম্লীয় ফল: শুনতে আশ্চর্যজনক হলেও ভিটামিন সি-তে ভরপুর এই ফলগুলো দাঁতের রং নষ্ট করার জন্য দায়ী। কারণটা খুবই সহজ, এই ফলে থাকা অম্লীয় উপাদানগুলো দাঁতের এনামেলের আস্তর নষ্ট করে দিতে পারে, ফলাফল দাঁতে হলদে রং। মিষ্টি: দাঁতের নানাবিধ ক্ষতি করে। এতে থাকা চিনি ক্যাভিটি তো তৈরি করেই, এনামেলের আস্তর ক্ষয় করতেও এর যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে।রাতে ব্রাশ না করা: এই বিষয়টি বলার অপেক্ষা রাখে না। দিনে দুবার দাঁত ব্রাশ করার কথা যুগ যুগ ধরে বলা হলেও অনেকেই রাতে দাঁত ব্রাশ করেন না, মূলত আলসেমির কারণে। ফলে সারাদিনের সব ব্যাকটেরিয়া সারারাত দাঁতের ক্ষতি করতে থাকে। তাই প্রতিরাতে ঘুমানোর আগে অবশ্যই কমপক্ষে দুই মিনিট দাঁত ব্রাশ করা উচিত।কোমল পানীয়: এই পানীয়গুলোতে প্রচুর চিনি থাকে যা দাঁতের এনামেলের আস্তর ক্ষয় করে দাঁতের রং হলুদ করে তোলে।ধূমপান: এই বিষয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। কারণ তা সবারই জানা। এর নিজস্ব একটি নামও আছে, স্মোকার স টিথ । প্রতিদিন অল্প অল্প করে দাঁতের রং ও তার স্বাস্থ্যহানী করে ধূপমান। বেরি জাতীয় ফল: বেদানা, স্ট্রবেরি, জাম ইত্যাদি স্বাস্থ্যকর ও সুস্বাদু ফল দাঁতের রংয়ের জন্য ক্ষতিকর।

কারণ হলো এদের গাঢ় রং যা দাঁতে দাগ ফেলে।ওষুধ: বিশেষ কিছু ওষুধ সেবনের কারণে দাঁত হলুদ হতে পারে। এদের মধ্যে আছে বিশেষ ধরনের অ্যান্টি-বায়োটিক , অ্যান্টি-হিস্টামিন বা অ্যালার্জির ওষুধ ও অ্যান্টি-হাইপারটেনিসিভ বা উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ।ছবি: রয়টার্স।আরও পড়ুন-দাঁত ও মুখের সমস্যা থেকে উচ্চ রক্তচাপ  যে সময় দাঁত মাজা জরুরি  দাঁত সাদা করতে  কতক্ষণ দাঁত ব্রাশ করা উচিত  ।