অপুকে ফেরাতে গিয়ে বিপাকে তিনি

image_titleসত্যজিৎ রায়ের অপু ট্রিলজি যেখানে শেষ হয়েছিল, সেখান থেকেই অপুর জার্নি দেখানোর পরিকল্পনা করেছিলেন পরিচালক মধুর ভান্ডারকর। অবশ্য ছবিটি তিনি পরিচালনা করতেন না। প্রযোজনা করতেন। কিন্তু তাও মানিকবাবুর ফ্যানেদের রোষ থেকে বাঁচতে পারলেন না তিনি।

তার নামেই জমা পড়ল পিটিশন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে একটি অনলাইন পিটিশনে এই বহুমূল্য সম্পদ রক্ষা করার আবেদন জানানো হয়েছে।কিছুদিন আগে প্রকাশ্যে আসে এই খবর। জানা যায়, অপুর সংসার ছবিতে যেখানে শেষ করেছিলেন সত্যজিৎ রায়, সেখান থেকে নতুন ছবিটি শুরু হবে। অপু-দুর্গার ছেলেবেলার গল্প দিয়ে পথের পাঁচালি এঁকেছিলেন সত্যজিৎ রায়।কিন্তু বিভূতিভূষণের অপু ফিরে এসেছিল নিশ্চিন্দিপুরে। তার পৌত্রিক ভিটেয়। কাজলও এসেছিল তার সঙ্গে। সেই গল্প এবার সেলুলয়েডে আনবেন পরিচালক শুভ্রজিৎ মিত্র। ছবির নাম অভিযাত্রিক ।অনলাইন পিটিশন জমা পড়েছে এর বিরুদ্ধেই। সেখানে লেখা হয়েছে, অপু ট্রিলজি সর্বকালের অন্যতম সেরা ছবি। সবদিক থেকে এটি পারফেক্ট। মধুর ভান্ডারকর অপুকে নিয়ে আরও একটি ছবি করতে চাইছেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে তাঁদের অনুরোধ, এই মহামূল্য ছবিটিকে ধ্বংসের হাত থেকে বাঁচানো হোক।মধুর ভান্ডারকর অবশ্য নিজের সপক্ষে যুক্তি দিয়েছেন।

বলেছেন, অপু ট্রিলজি -র কোনও ছবি তাঁরা রিমেক করছেন না। সত্যজিৎ রায় যা বানিয়েছিলেন তাতে হাতও পড়বে না। ভান্ডারকর এন্টারটেনমেন্ট যা প্রযোজনা করতে চলেছে, তার নাম অভিযাত্রিক ।বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে এটি তৈরি করা হচ্ছে। তিনি নিজে সত্যজিৎ রায়ের বড় অনুরাগী। তিনি ভারতীয় সিনেমা ও বিশ্বের দর্শককে অন্য দিশা দেখিয়েছেন। তাঁর ছবি নিয়ে কাটাছেঁড়া তিনি করছেন না। নতুন গল্প নিয়ে সিনেমা বানাচ্ছেন। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।বিডি প্রতিদিন/কালাম।