অভ্যাসে ব্রণের সমস্যা

image_titleসঠিক প্রসাধনী ব্যবহার না করার কারণে অনেক সময় ব্রণেসহ ত্বকে নানান সমস্যা দেখা দেয়। অনেকেই দিনের পর দিন একই পণ্য ব্যবহার করেন। তবে মনে রাখতে হবে বয়সের সঙ্গে মানানসই প্রসাধনী ব্যবহার না করলে ত্বকের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই ত্বকের সমস্যায় রূপ-বিশেষজ্ঞের পাশাপাশি চর্মরোগ-বিশেষজ্ঞের পরামর্শও নেওয়া উচিত।

ভুল প্রসাধনী ব্যবহার ছাড়াও প্রতিদিনের কিছু অভ্যাসের কারণে ত্বকে ব্রণ, ফুসকুড়ি দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে।রূপচর্চা-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে এই বিষয়ে জানানো হল বিস্তারিত।সাবান ব্যবহার: ভারতীয় ত্বক-বিশেষজ্ঞ ডা. নিবেদিতা দাদু জানান, সাবানে আছে ক্ষতিকারক রাসায়নিক উপাদান। এতে থাকা সকল উপাদানই ত্বক পরিষ্কারে ভূমিকা রাখে না। ত্বকের সমস্যায় ত্বকের পিএইচ বা ক্ষারীয় অবস্থা মূল ভূমিকা পালন করে। সাধারণ সাবানে পিএইচের মাত্রা ৯ থেকে ১১, যা ত্বকে ক্ষারের মাত্রা বাড়ায় এবং সমস্যা সৃষ্টি করে।এই চিকিৎসক সতর্ক করে দিয়ে বলেন, মুখে সাবান ব্যবহার করলে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। ফলে ত্বকে জ্বালাপোড়া, অস্বস্তি ও ব্রণ দেখা দিতে পারে। স্মার্ট ফোন: ভারতীয় কস্মেটোলজিস্ট ডা. করুণা মালহোত্রা বলেন, স্মার্টফোন ত্বকে ব্রেক আউট সৃষ্টি করতে পারে। মোবাইলের পেছনের অংশ ও স্ক্রিনে থাকা ব্যাক্টেরিয়া মুখের সংস্পর্শে এসে নানান রকম দাগছোপ ও ব্রণ সৃষ্টি করে।  বার বার মুখে হাত দেওয়া: অপরিষ্কার হাতে বার বার মুখে হাত দিলে ত্বকে নানান রকমের সমস্যা দেখা দেয়।ডা. নিবেদিতা বলেন, মুখে বার বার হাত দিলে তেল, ময়লা, জীবাণু ত্বকের সংস্পর্শে আসে। এছাড়াও মাথায় ব্যবহৃত প্রসাধনী মুখের সংস্পর্শে এসে লোমকূপ বন্ধ করে দেয়। ফলে ত্বকে ব্রণ দেখা দিতে পারে। তাই যারা ব্রণের সমস্যায় ভুগছেন তাদের ক্ষেত্রে এসব অভ্যাস পরিবর্তন, মোবাইল ফোন ব্যবহারে সাবধানতার পাশাপাশি ত্বকের জন্য মানানসই পণ্য ব্যবহারে সচেতন হওয়ার প্রয়োজন বলে মনে করেন এই ত্বক-বিশেষজ্ঞ।ছবির মডেল: আরিয়ানা জামান এলমা।

মেইকআপ: আরিফ। ফটোগ্রাফার: তানভির খান। ছবি সৌজন্যে: ত্রয়ী ফটোগ্রাফি স্টুডিও।আরও পড়ুনব্রণ প্রবণ ত্বক শেইভ করবেন যেভাবে  পিঠের ব্রণ দূর করার উপায়  ব্রণ হওয়ার অন্য কারণ  ।