স্বাস্থ্যকর অভ্যাসের অস্বাস্থ্যকর দিক

image_titleদৈনন্দিন জীবনের স্বাস্থ্যকর অভ্যাসগুলোও যে স্বাস্থ্যহানির কারণ হয়ে উঠতে পারে এমনটা কি কখনও ভেবে দেখেছেন? ভিটামিন ট্যাবলেট খাওয়া, দাঁত ব্রাশ করা, শরীরচর্চা ইত্যাদি একটা পর্যায়ে অস্বাস্থ্যকর হয়ে উঠতে পারে যদি মাত্রাতিরিক্ত করা হয়।স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে সংগ্রহ করা তথ্যের আলোকে জানানো হল এমন কিছু স্বাস্থ্যকর অভ্যাস সম্পর্কে যা অতিরিক্ত অনুশীলন করলে স্বাস্থ্যহানির কারণ হতে পারে।উচ্চমাত্রায় ভিটামিন গ্রহন: হাই ডোজ য়ের ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট গ্রহন করা স্বাস্থ্যের জন্য হিতে বিপরীত হতে পারে। প্রয়োজনের তুলনায় চারগুণ বেশি সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ সুস্বাস্থ্য দেওয়া পরিবর্তে বাড়াবে ক্যান্সারের ঝুঁকি।

এর কারণ হল দীর্ঘদিন ধরে অতিমাত্রায় ভিটামিন গ্রহণ করলে শরীরের কোষের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয়। দৈনিক ভিটামিন বা পুষ্টি উপাদানের চাহিদার বেশি সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করা কখনই উচিত নয়। তবে চিকিৎসক যদি সেটা করার পরামর্শ দেন সেটা ভিন্ন কথা।অতিরিক্ত ওয়াইন পান: অনেকেই বিশ্বাস করেন প্রতিদিন এক গ্লাস ওয়াইন পান করা হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। তবে এক গ্লাসেই সীমাবদ্ধ থাকতে হবে, যা প্রায় চার আউন্স পরিমাণ। পরিসংখ্যান বলে, মানুষ হৃদযন্ত্র ভালো রাখার জন্য ওয়াইন পান করতে গিয়ে এক গ্লাসের চাইতে ৪৭ শতাংশ বেশি ওয়াইন পান করে ফেলেন। অতিরিক্ত ওয়াইন উচ্চ রক্তচাপ, অস্বাভাবিক ওজন এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়।এক্সফলিয়েটিং: ত্বক থেকে ময়লা, তেল ও মৃতকোষ পরিষ্কার করার অত্যন্ত কার্যকর একটি পদ্ধতি এক্সফলিয়েটিং । পাশাপাশি, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও অন্যান্য পুষ্টি উপাদান ত্বকের গভীরে সহজে পৌঁছাতেও সহায়তা করে এই পদ্ধতি। তবে এর অতিরিক্ত ব্যবহার ত্বক শুষ্ক করে তুলতে পারে, দেখা দিয়ে পারে জ্বালাপোড়া। যাদের ত্বক শুষ্ক, তাদের উচিত সপ্তাহে একবার শুধু স্ক্রাবিং য়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকা। আর যাদের ত্বক তৈলাক্ত তাদের ক্ষেত্রে সপ্তাহে দুবার।অতিরিক্ত দাঁত ব্রাশ: অনেকেই দাঁত ব্রাশ করতে গিয়ে আধা ঘণ্টা পার করে দেন। এতে দাঁতের এনামেল য়ের আস্তর ক্ষয় করে এবং মাড়ি ভেতরের দিকে ঢুকে যায়। যার ফলাফল হল দাঁতের নানান জটিলতা। পরিসংখ্যান বলে ১০ থেকে ২০ শতাংশ মানুষ বেশি দাঁত ব্রাশ করেই দাঁতের বারোটা বাজান।

 অতিরিক্ত শরীরচর্চা: নিয়মিত শরীরচর্চার গুরুত্ব সম্পর্কে কে না জানে। শরীর, মন, স্বাস্থ্য সবই ভালো রাখে এই শরীরচর্চা। অনেকেই পর্যাপ্ত শরীরচর্চা করেন না। তবে কিছু মানুষ আবার বাড়াবাড়ি করে ফেলেন, আর সেখানেই বাধে বিপত্তি।শরীরচর্চার পর শরীরকে বিশ্রাম দেওয়া অত্যন্ত জরুরি। তাই ভারী ব্যায়াম করার পর চাই বিরতি। অতিরিক্ত ব্যায়াম করলে অতিরিক্ত উপকার মিলবে না কখনই, বরং দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি হতে পারে।ছবি: রয়টার্স।আরও পড়ুনবেশি ঘুমানোর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ারক্তে বেশি হরমনের মাত্রা, প্রোস্টেইট ক্যান্সারের আশঙ্কাস্থূলতার কারণে ফুসফুসের ভেতর চর্বি জমে  বোধ কম থেকে ওজন বেশি  ।