ডায়াবেটিসে উপকারী জামের দানা

image_titleপুষ্টি-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জামের দানার উপকারিতা সম্পর্কে জানানো হল।পুষ্টিগুণ: জামের দানায় জ্যামবোসিন এবং জ্যাম্বোলিন নামক অত্যাবশ্যকীয় উপাদান থাকে যা ধীরে ধীরে শর্করার মাত্রা নিয়িন্ত্রণ করতে সহায়তা করে এবং শক্তি যোগায়। এটা হঠাৎ রক্তে শর্করা বেড়ে যাওয়া নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং শরীরে ইন্সুলিনের ভারসাম্য বজায় রেখে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। ডায়াবেটিস নিরাময়ক: জাম ফাইটোকেমিকল সমৃদ্ধ যা শরীরের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে এবং ইন্সুলিনের উৎপাদন সুনিয়ন্ত্রিত রাখতে সহায়তা করে।

জামের দানায় থাকা জ্যাম্বোলাইন এবং জ্যাম্বোসিন উপাদানের জন্য তা ঔষধি গুণ সম্পন্ন। এছাড়াও জামের দানায় রয়েছে অ্যাল্কালয়েডস। যা শর্করা থেকে শক্তিতে রূপান্তরিত হয় এবং ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা কমায়।এই উপাদানগুলোর জন্য জামের দানা উচ্চ আঁশ সমৃদ্ধ, যা হজম ক্রিয়া উন্নত করতে এবং বিপাক বাড়াতে সহায়তা করে ফলে শরীরের শর্করার মাত্রা ঠিক থাকে।ভিটামিন সি সমৃদ্ধ: জামের মজাদার স্বাদ সব বয়সের মানুষেরই পছন্দ। জামের স্বাদ ভিন্ন হওয়ার পেছনে প্রধান কারণ হল ভিটামিন সি। এছাড়া এতে আছে সীমিত ক্যালরি এবং বেশি পরিমাণে ফাইটোক্যামিকল। জাম মূত্র বর্ধক: আয়ুর্বেদ শাস্ত্র থেকে জানা যায়, জাম মূত্র বর্ধক, যা নানা রকমের রোগ যেমন- অ্যাজমা, আর্থ্রাইটিস, হৃদরোগ, পেট ফাঁপা ও আমাশয় থেকে রক্ষা করে। জামের মূত্র বর্ধক ক্ষমতার কারণে কিডনি থেকে বিষাক্ত উপাদান বের হয়ে যায়।হজমে সহায়তা করে: জামে আছে আঁশ, যা হজমে সহায়তা করে বমি বমি ভাব দূর করতে সহায়তা করে।আরও পড়ুনডায়বেটিসের ঝুঁকি কমাতে ডিম  ইন্সুলিন তৈরির প্রাকৃতিক পদ্ধতি  হলুদের স্বাস্থ্যগুণ  ।