প্রধানমন্ত্রীর ‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় স্বাস্থ্যকর্মীদের আনন্দ শোভাযাত্রা

image_titleশুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে কয়েকশ স্বাস্থ্য সহকারী এই শোভাযাত্রায় অংশ নেন।হাই কোর্টের কদম ফোয়ারার মোড় ঘুরে আনন্দ শোভাযাত্রাটি পল্টন মোড় হয়ে আবার প্রেস ক্লাসের সামনে এসে শেষ হয়।এর আগে প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ রবিউল আলম খোকন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী পদক্ষেপ এবং স্বাস্থ্য সহকারীদের টিকাদান কর্মসূচিতে একনিষ্ঠতা বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাতকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। গুটিবসন্ত দূরীকরণ, ম্যালেরিয়া দূরীকরণ, ডিপথেরিয়া, হুপিং কাশি ও ধনুষ্টংকার, শিশুদের যক্ষ্মা, হাম-রুবেলা নিয়ন্ত্রণ, হেপাটাইটিস-বি নিয়ন্ত্রণসহ পোলিও মুক্ত বাংলাদেশ গঠনের প্রধান কারিগর স্বাস্থ্য সহকারীরাই।

স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মতৎপরতার ফলে টিকাদান কর্মসূচি বাংলাদেশ আজ দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথম হয়েছে মন্তব্য করে শেখ রবিউল আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিনস অ্যান্ড ইমুনাইজেশনের (জিএভিআই)  ভ্যাকসিন হিরো উপাধিতে ভূষিত হওয়া স্বাস্থ্য সহকারীদের নিরলস কর্মের ফসল বলে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রী এই সম্মানে ভূষিত হওয়ায় হেলথ অ্যাসিসটেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ তাকে সংবর্ধনা দেওয়ার ইচ্ছার কথা জানান সংগঠনের সভাপতি শেখ রবিউল।পোলিও নির্মূল এবং ডিপথেরিয়া, হেপাটাইসিস বি ও রুবেলার মত মরণব্যাধি নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখায় শেখ হাসিনার প্রশংসা করে গত ২৩ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানে তার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর হাতে এই সম্মাননা পুরস্কার তুলে দেন জিএভিআই বোর্ডের চেয়ার নগচি ওকোনজো-আইয়েলা।।