আগুন লেগেছিল টেসলার সৌর প্যানেলে

image_titleআগের কয়েক বছরে টেসলার সৌর ব্যবস্থা থেকে স্টোরে আগুন লাগার কারণে প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মামলাও করেছে ওয়ালমার্ট। বেশ কয়েক বছর ধরে বিশুদ্ধ শক্তির প্রকল্পে টেসলার অংশীদার ওয়ালমার্ট। ২৪০টির বেশি ওয়ালমার্ট স্টোরে টেসলার সৌর বিদ্যুত ব্যবস্থা রয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে সিএনবিসি।মামলায় ওয়ালমার্ট দাবি করেছে যে, সৌর ব্যবস্থা যাচাই করতে টেসলা নিয়মিতভাবেই লোক পাঠায় কিন্তু তাদের সৌর বিদ্যুত নিয়ে মৌলিক প্রশিক্ষণ এবং জ্ঞান নেই।

মামলায় আরও বলা হয়, সৌর এবং বৈদ্যুতিক ব্যবস্থা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে ব্যর্থ হয়েছে টেসলা। আর ওয়ালমার্ট স্টোরে যেসব সৌর প্যানেল ইনস্টল করা হয়েছে সেগুলোতে অনেক ত্রুটি রয়েছে যা খালি চোখেই দেখা যায়। আগুন লাগার আগেই এগুলো খুঁজে বের করে সারানো উচিত ছিলো টেসলার।বৃহস্পতিবার ওয়ালমার্ট এবং টেসলার এক বিবৃতিতে বলা হয়, টেসলা সব সমস্যাগুলো দেখবে এবং ওয়ালমার্ট স্টোরে ইনস্টল করা সৌর ব্যবস্থাগুলো পুনরায় ঠিক করবে। অ্যামাজনও টেসলার বিরুদ্ধে এই পদক্ষেপ নেবে কিনা তা স্পষ্ট করে বলা হয়নি। ই-কমার্স জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, তাদের খুব অল্প সংখ্যক সৌর ব্যবস্থা টেসলার দেওয়া এবং কর্মী ও ব্যবসা রক্ষার্থে এগুলো ইনস্টল করার সময় ভালোভাবে যাচাই করা হয়েছে।২০১৬ সালে ২৬০ কোটি মার্কিন ডলারে সোলারসিটি অধিগ্রহণের ফলে এখনো শেয়ারধারীদের তোপের মুখে রয়েছে টেসলা। এবার সৌর প্যানেলে আগুন লাগার ঘটনায় সমালোচনা আরও বাড়তে পারে।ওয়ালমার্টের মামলায় টেসলাকে ২৫ থেকে ১০০ কোটি মার্কিন ডলার পর্যন্ত জরিমানা করা হতে পারে।।