এশিয়ান কাপে চোখ জেমি ডের

২০২২ কাতার বিশ্বকাপের বাছাই পর্ব। একই সাথে তা ২০২৩ চীন এশিয়ান কাপেরও কোয়ালিফাইং রাউন্ড। বাংলাদেশের ফুটবলে এখনও সেই সু-সময় আসেনি বিশ্বকাপ বাছাইয়ের চূড়ান্ত পর্বে খেলার। যেখানে তাদের জয় পেতেই কষ্ট।

বরং একটু চেষ্টা করলে এশিয়ান কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলা যায়। যে সুযোগ গতবার নস্যাৎ হয়েছিল ভুটানের কাছে দুখঃজনক হারে। তাই এবারে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের আড়ালে লাল সবুজদের মূল লক্ষ্য এশিয়ান কাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলা। কাল ন্যাশনাল টিমস কমিটির সভা শেষে এই টার্গেটই স্থির করলেন সোমবার ইংল্যান্ড থেকে আসা হেড কোচ জেমি ডে।সে সাথে এটাও উল্লেখ করলেন, ১০ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয় দিয়েই এবারের বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শুরু করতে চায় তার দল।কোচ সোমবার এলেও জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে ২৩ আগষ্ট থেকে। আর আফগানদের হোম ভেনু তাজিকিস্তান যাবে ১ সেপ্টেম্বর। নানা কাজের জন্য এর আগে জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু করা যাচ্ছে না। এমনটিই জানালেন ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান ও বাফুফে সহ সভপাতি কাজী নাবিল আহমেদ। তবে ক্যাম্প শুরুর আগে ফুটবলাররা কোচের দেয়া গাইড লাইন অনুযায়ী নিজেদের ফিট রাখবেন। উল্লেখ করলেন কাজী নাবিল।তাজিকিস্তানের আবহাওয়া এবং উচ্চতার সাথে নিজেদের মানিয়ে নিতেই আগে ভাগে মধ্য এশিয়ার দেশটিতে যাওয়া। সেখানে বাফুফের খরচেই টার্ফে অনুশীলন চলবে বাংলাদেশ দলের। তবে এখনও চূড়ান্ত হয়নি তাজিকিস্তানের কোন দুই ক্লাব দলের বিপক্ষে ৩ ও ৫ সেপ্টেম্বর ম্যাচ খেলবেন জামাল ভূঁইয়ারা।মূলত: ঢাকা আবাহনী এএফসি কাপে ইন্টার জোন প্লে-অফ সেমিফাইনালের অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলে উত্তর কোরিয়ার পিয়ংইয়ং থেকে ফিরে আসার পর জাতীয় দল ২৫ থেকে ২৩ জনে নেমে আসবে। ২৮ তারিখে এপ্রিল ২৫ ক্লাবের বিপক্ষে দলটির অ্যাওয়ে ম্যাচ।

লিগের লম্বা সময় বাংলাদেশে উপস্থিত না থেকে ইংল্যান্ডে ছুটি কাটিয়েছেন জেমি ডে। সেখানে বসেই তিনি বাংলাদেশ দল ঘোষণা করেন। এতে লিগে ভালো করা বেশ কয়েকজন ফুটবলার তার চোখ এড়িয়ে গেছে বলে অভিযোগ। জেমি ডে’র জবাব, আমি গত ১৪ মাসে যাদের দেখেছি এবং যারা সেরা,জাতীয় দলকে বেটার সার্ভিস দিতে পারবে তাদেরই ডেকেছে। তবে সামনে আরো অনেক ম্যাচ। পারফর্ম করা সবারই সুযোগ আছে জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার।২০১৬/১৬ সালে অনুষ্ঠিত ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে বাংলাদেশ কোনো ম্যাচ জিততে পারেনি। একটি মাত্র ড্র ঢাকায় তাজিকিস্তানের বিপক্ষে। নিজেদের জালে গেছে ৩২ টি গোল। এবার বাংলাদেশের লক্ষ্য কী কাতার বিশ্বকাপের বাছাই পর্বে? কাজী নাবিলের মতে, ‘আমরা গতবারের চেয়ে ভালো রেজাল্ট করতে চাই এবার। প্রথম ম্যাচেই হারানোর টার্গেট আফগানদের।’ কোচ জেমি ডে’র জবাব, আমাদের লক্ষ্যই হলো ইতিবাচক। প্রতি ম্যাচে জয়ই আমাদের টার্গেট। তবে গ্রুপটা বেশ কঠিন। এরপরও নেতিবাচক মানসিকতা থাকবেনা আমাদের। ফুটবলারদের প্রতি আমার আত্মবিশ্বাস আছে তারা ভালো করতে এবারের বাছাই পর্বে।’ জানান, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য এই বাছাই পর্ব থেকে এশিয়ান কাপে কোয়ালিফাই করা।’উল্লেখ্য, গ্রুপে বাংলাদেশ তৃতীয় হলেই এশিয়ান কাপের দ্বিতীয় দফা বাছাই পর্বে খেলতে পারবে। সেখানে গ্রুপ রানার্সআপ হতে পারলে এশিয়ান কাপে।বাজে পারফর্ম করা সত্ত্বেও কেন জাতীয় দলে ফের গোলরক্ষক সোহেল। কোচের জবাব, ‘সোহেল দেশের সেরা তিন গোলরক্ষকের একজন। সে ভুল করেছে। এটা মানুষই করে। আবার সে দূর্দান্তও খেলে।’ লিগে গোল পাওয়া স্ট্রাইকার জীবন, মতিন মিয়া এবং উঠতি আরিফকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত জেমি ডে। জীবনতো আনেক চান্স তৈরী করেছিল লাওসের বিপক্ষে।তবে তিনি জানান,‘লিগ আর আন্তর্জাতিক ম্যাচ সম্পূর্ন ভিন্ন। অবশ্য এই তিন ফুটবলার এবার গোল পেয়েছে। এটা ইতিবাচক দিক।’ স্ট্রাইকার হয়েও সাদ, সুফিল এবং ইব্রাহিমদের এবারের লিগে রক্ষনকর্মী হিসেবে খেলা প্রসঙ্গে বলেন, ‘এতে আমার সুবিধা হলো প্রয়োজনের সময় তাদের এই পজিশনে খেলানো।’ বাদ পড়া ইমন বাবু সম্পর্কে বলেন, সে প্রমান করুক আমার সিদ্ধান্ত ভুল। এমনকি ৭ গোল করা মোহামেডানের তকলিসকেও নেইনি আরো বেটার ফুটবলার পাওয়ায়। আমি তাদেরই দলে নিয়েছি যাদের ধারাবাহিকতা ছিল লিগে।।