চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ডেঙ্গু পরীক্ষা নয়: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

image_titleসারা দেশে বেড়ে চলা ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ মোকাবেলার লক্ষ্যে রোববার জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এইডিস বাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির আওতায় আয়োজিত এক সভায় এ অনুরোধ জানান অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সারা দেশের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে ঢালাওভাবে সব ধরনের রোগীর এনএস-ওয়ান পরীক্ষা করা হচ্ছে। এ কারণে পরীক্ষায় ব্যবহৃত কিটের অপচয় হচ্ছে। এ কারণে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ডেঙ্গু রোগের পরীক্ষা না করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সভায় রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা, ডা. সমীর কান্তি, মো. রুহুল আমিন এবং জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এইডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. এম এম আক্তারুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বাংলাদেশ কলেজ অব মেডিসিন এর পক্ষ থেকে সোমবার সারা দেশের ১৩টি সরকারি মেডিকেল কলেজ এবং ৭ অগাস্ট ৫১টি জেলার সদর হাসপাতাল এবং উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসকদের ডেঙ্গু ব্যবস্থাপনা বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।এছাড়া গত ৩১ জুলাই থেকে ৩ অগাস্ট পর্যন্ত দেশে তিন লাখ ৬৮ হাজার ২০০ ডেঙ্গু শনাক্তকরণ কিট আমদানি করা হয়েছে। ৬ অগাস্ট থেকে দেশে কিট তৈরির জন্য কাঁচামাল আমদানির প্রক্রিয়া চলছে। এখানে প্রতিদিন ৩৫ হাজার ডেঙ্গু শনাক্তকরণ কিট তৈরি করে সরবরাহ করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।।