ভয়াবহ দুর্ঘটনা: লেভেল ক্রসিংগুলো আর কতদিন অরক্ষিত থাকবে?

image_titleকিছুদিন পরপর লেভেল ক্রসিংগুলোয় দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটলেও অবৈধ লেভেল ক্রসিংগুলো বন্ধ করার উদ্যোগ লক্ষ করা যাচ্ছে না। অবৈধ ও...কিছুদিন পরপর লেভেল ক্রসিংগুলোয় দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটলেও অবৈধ লেভেল ক্রসিংগুলো বন্ধ করার উদ্যোগ লক্ষ করা যাচ্ছে না। অবৈধ ও অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংগুলো যে মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে, এটি বহুল আলোচিত।দেশে শত শত অবৈধ লেভেল ক্রসিং রয়েছে।

এসব লেভেল ক্রসিংয়ে অহরহ ঘটছে দুর্ঘটনা। সোমবার সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় সলপ রেলস্টেশনের অদূরে এ রকম এক অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটেছে। এতে ঘটনাস্থলেই মাইক্রোবাসযাত্রী বর-কনে ও তাদের স্বজনসহ নিহত হয়েছেন ৯ জন।আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। এ সম্পাদকীয় লেখা পর্যন্ত উল্লিখিত ঘটনায় মোট নিহতের সংখ্যা ১১। যে অরক্ষিত ও অবৈধ লেভেল ক্রসিংয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে, এ সড়কে প্রতিদিন অনেক মানুষ চলাচল করে। স্থানীয় লোকজন ছাড়াও এক উপজেলা থেকে অন্য উপজেলায় যাতায়াতকারী লোকজনও প্রতিদিন এ সড়কে চলাচল করে।এ রকম ব্যস্ততম একটি সড়কে অরক্ষিত ও অবৈধ একটি লেভেল ক্রসিং বিদ্যমান থাকলেও রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ তা কেন বন্ধ করার যথাযথ উদ্যোগ নেয়নি, এটি একটি প্রশ্ন। কেবল এটি নয়, সারা দেশে এ রকম আরও অনেক অরক্ষিত ও অবৈধ লেভেল ক্রসিং রয়েছে।এসব অবৈধ লেভেল ক্রসিং বন্ধ করতে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ যথাযথ উদ্যোগ না নিলে একের পর এক দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনা ঘটতেই থাকবে।এক পরিসংখ্যান অনুযায়ী, সারা দেশে অনুমোদিত ও অনুমোদনহীন দুই হাজারের বেশি লেভেল ক্রসিং রয়েছে। এসব লেভেল ক্রসিংয়ের বেশিরভাগেরই প্রতিবন্ধক কিংবা গেটম্যান নেই। অর্থাৎ বিপুলসংখ্যক লেভেল ক্রসিং অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে, যে কারণে এগুলো পরিণত হয়েছে মৃত্যুফাঁদে। প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগের মাধ্যমে লেভেল ক্রসিংগুলো সুরক্ষিত করতে পারলে দুর্ঘটনা কমিয়ে আনা সম্ভব হবে।দেশের বিদ্যমান অবৈধ লেভেল ক্রসিংগুলো কারা কখন নির্মাণ করেছে তা অনুসন্ধান করা জরুরি। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ দাবি করে থাকে, অরক্ষিত লেভেল ক্রসিংগুলো অবৈধ।

এসব অবৈধ লেভেল ক্রসিং বিভিন্ন ব্যক্তি বা সংস্থা রেল কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই যথাযথ নিয়ম অনুসরণ না করে তৈরি করেছে।প্রশ্ন হল, তাহলে অনুমোদনহীন এসব লেভেল ক্রসিং বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে না কেন? দুর্ঘটনা হ্রাস করতে চাইলে অবৈধ লেভেল ক্রসিং বন্ধ করতে হবে। রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ যদি মনে করে এটি তাদের দায়িত্ব নয়, তাহলে আমরা বলব, তাদের সিদ্ধান্ত সঠিক নয়। দুর্ঘটনা ঘটলে তার দায়ভার তাদের ওপরও বর্তায়। কাজেই সব লেভেল ক্রসিংয়ের দায়িত্বই তাদের নিতে হবে।সময়ের চাহিদা অনুযায়ী রেলপথের সম্প্রসারণসহ সেবার মান বাড়ানোর দিকে যেমন গুরুত্ব দিতে হবে, তেমনি মানুষের সামগ্রিক নিরাপত্তার বিষয়টিও বিবেচনার বাইরে রাখা যাবে না। জননিরাপত্তার স্বার্থে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের উচিত লেভেল ক্রসিং ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করা।।