ইউরোপ প্রতিশ্রুতি রক্ষা করেনি, ইরানও করবে না খামেনি

image_titleখামেনির ওয়েবসাইট থেকে মঙ্গলবার একথা জানা গেছে। তিনি বলেছেন, আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দেওয়া তথ্যমতে, ইউরোপ ১১ টি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। এর একটিও তারা মেনে চলেনি। খামেনি আরো বলেন, আমরা আমাদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি এমনকী তার বাইরেও অনেককিছু মেনেছি।

এখন আমরা সেইসব প্রতিশ্রুতি থেকে সরে আসছি। আর তারা (ইউরোপ) এখন এর বিরোধিতা করছে। কতটা অবিবেচক আপনারা আপনাদের প্রতিশ্রুতি মানেননি। ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে সাক্ষরিত পরমাণু চুক্তিতে ছিল বিশ্বের ছয় শক্তিধর দেশ। গতবছর যুক্তরাষ্ট্র এ চুক্তি থেকে বেরিয়ে এলেও বাকি ইউরোপীয় দেশগুলো এ চুক্তিতে রয়ে গেছে।যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প গতবছর ইরানের ওপর সব পুরোনো নিষেধাজ্ঞা বহাল করাসহ নতুন আরো নিষেধাজ্ঞা আরোপের পদক্ষেপ নিতে শুরু করার পরই সমস্যার শুরু।ইরান চায় তাদের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হোক৷ সেজন্য তারা চুক্তিতে থাকা ইউরোপীয় দেশগুলোকে চাপ দিচ্ছে৷ পরমাণু চুক্তিতে বলা হয়েছিল, ইরান ৩ দশমিক ৬৭ শতাংশের বেশি ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতে পারবে না এবং সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম ৩শ কেজির বেশি মজুদ রাখতে পারবে না।কিন্তু ইরান এরই মধ্যে এ সীমা অতিক্রম করে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এর পরের ধাপে ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ আরো বাড়িয়ে ২০ শতাংশে চলে যাওয়ারও হুমকি দিয়েছে।এর মধ্যেই এবার খামেনি ইউরোপের বিরুদ্ধে চুক্তি ভঙ্গের অভিযোগ করলেন। টিভিতে প্রচারিত তেহরানে এক বক্তব্যে খামেনি বলেন, আমরা কেবল চুক্তির প্রতিশ্রুতি থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছি এবং এ প্রক্রিয়া নিশ্চিতভাবেই চলবে।।