যাওয়া-আসা বরাবরই হয় ফখরুল

image_titleবুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় বক্তব্যে কারও নাম উল্লেখ না করে একথা বলেন তিনি।ফখরুল বলেন, দুই একটা লোক বেরিয়ে যাচ্ছে, আসছে-যাচ্ছে, এটা বরাবরই হয়েছে। এটা হবেই। সবাই তো একই রকম হয় না।

কারও কারও মধ্যে ভিন্ন চিন্তা থাকে, বোধ থাকে। যে কোনো সিদ্ধান্ত খালেদা জিয়ার পরামর্শেই নেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, প্রতিটি সিদ্ধান্ত আমরা নিয়েছি তার সঙ্গে পরামর্শ করে, তার কনসার্ন নিয়ে। ২০ দল আগেই ছিল, আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছি তার পরামর্শ নিয়ে, আমরা নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি তারই পরামর্শ নিয়ে। উপস্থিত নেতাকর্মীদের বুকে সাহস নিয়ে এগুনোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, নির্বাচনের আগে ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনের উদ্দেশ্য ছিল আওয়ামী লীগকে পরাজিত করা। আমরা পারিনি। তার মানে এই না যে, আমরা শেষ হয়ে গেছি, আমরা মুখ থুবড়ে পড়ে গেছি, আমাদের জনগণের সমস্ত আশা-আকাঙ্ক্ষা ধ্বংস হয়ে গেছে। কখনোই না। হতাশ না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে ফখরুল বলেন, আমরা যদি একত্রিত হতে পারি, ঐক্যবদ্ধ হতে পারি তাহলে মানুষগুলোকে নিয়েই আমরা সামনের দিকে এগুতে পারব। প্রয়াত রাজনীতিক মশিউর রহমান যাদু মিয়ার ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপি মহাসচিব।মশিউর রহমান যাদু মিয়া স্মৃতি জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক শামসুল হকের সভাপতিত্বে ও আরিফুল হোসেন আরিফের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জাফরুল্লাহ চৌধুরী, অধ্যাপক ড. মাহবুবউল্লাহ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, সাবেক ছাত্র নেতা কাশেম চৌধুরী, এনামুল হক শহীদ, আখতার হোসেন, নুরুল হুদা নিলু চৌধুরী, গোলাম মোস্তফা আকন, ওসমান গনি ও যাদু মিয়ার মেয়ে রিটা রহমান প্রমুখ।।