গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিতে তীব্র আন্দোলনের হুমকি ফখরুলের

image_titleগ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্তে সরকারের কঠোর সমালোচনা করে রাজপথে তীব্র আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে বিএনপি। রোববার (৩০ জুন) রাতে দলের সহ-দফতর সম্পাদক মুহাম্মদ মুনির হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ হুমকি দেন।
তিনি বলেন, ‘জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় বলেই বর্তমান অবৈধ সরকার প্রতিটি ক্ষেত্রে গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। গণবিরোধী গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসতে হবে।

অন্যথায় সরকারের এই গণবিরোধী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে জনগণকে সাথে নিয়ে দেশব্যাপী রাজপথে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’
মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকা বিপর্যস্ত করতে আবারও ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করেছে সরকার। গ্যাসের দাম বাড়িয়ে এক চুলায় ৯২৫ টাকা এবং দুই চুলায় ৯৭৫ টাকা নির্ধারণ করে আগামীকাল ১ জুলাই থেকে তা কার্যকর করার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। শুধুমাত্র লুটপাটের জন্য ভোক্তা পর্যায়ে বেআইনভাবে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করা হলো, যা সম্পূর্ণভাবে অযৌক্তিক ও মনুষত্বহীন পদক্ষেপ। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির মাশুল গুনতে হয় সাধারণ মানুষকে। গত ১০ বছরে গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়েছে ৬ বার। দেশের মানুষের রক্ত শোষণের যন্ত্রে পরিণত হয়েছে বর্তমান মধ্যরাতের নির্বাচনের সরকার। চারদিকে নৈরাজ্য ও হাহাকার ছাড়া এই সরকার আর কিছুই উপহার দিতে পারেনি জনগণকে। আমি বিএনপির পক্ষ থেকে গ্যাসের এই মূল্যবৃদ্ধির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
তিনি বলেন, ‘ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির কোনো কারণ সৃষ্টি হয়নি, অথচ সরকার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির মাধ্যমে জনগণকে বিশাল ভোগাান্তিতে নিক্ষেপ করলো। বিএনপি মনে করে, সরকারের রাঘববোয়ালদের পকেট ভারী করতেই গ্যাসের এই মূল্যবৃদ্ধি। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিতে বেশুমার দুর্নীতির মাধ্যমে ক্ষমতাসীনদের অর্থ উপার্জনের সুযোগ সৃষ্টি হবে।’
কেএইচ/এমএসএইচ