মেসি না থাকলে আর্জেন্টিনার কী হবে?

image_titleকোপা আমেরিকায় টানা দু’টো ম্যাচে খারাপ পারফরম্যান্সের পর আর্জেন্টিনা এবং লিওনেল মেসির বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিতে শুরু করলেন সাবেক তারকা ফুটবলার থেকে কোচেরা। কেউ দাবি তুলেছেন, ‘‘মেসিকে আপাতত আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে ছুটি দেওয়া হোক।’’ কারো মত, ‘‘নতুন করে শুরু করুক আর্জেন্টিনা। এই দল নিয়ে শুধুই ব্যর্থতার স্বাদ পেতে হবে।

লজ্জা বাড়বে।’’কোপায় দু’ম্যাচে এক পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে সবার শেষে আছে আর্জেন্টিনা। শেষ ম্যাচে কাতারের বিরুদ্ধে জিতলে মেসির দলের সামনে কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার রাস্তা তৈরি হলেও হতে পারে। রয়েছে অনেক ‘যদি’ এবং ‘কিন্তু’।এই অবস্থায় আর্জেন্টিনার সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার মারিয়ো কেম্পেস দাবি তুলেছেন, ‘‘মেসিকে কিছুদিনের জন্য আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে বিশ্রাম দিলে খারাপ হবে না। অন্য ছেলেরা খেলুক। আমার মনে হয় না এর চেয়ে খারাপ কিছু হবে।’’ পাঁচ বারের ব্যালন ডি’ওরের মালিক ও আর্জেন্টিনা অধিনায়ককে কটাক্ষ করে কেম্পেস বলে দিয়েছেন, ‘‘মেসি না থাকলে কী হবে? কিছুই হবে না। সবাই বল পেলেই মেসিকে খোঁজে। ওদের নিজেদের উপর কোনো আত্মবিশ্বাসই নেই। মেসি না খেলে নতুন ছেলেরা খেললে সেটা ভালোই হবে।’’সামনের সপ্তাহে বত্রিশ বছরে পড়বেন মেসি। ১৩২ ম্যাচে ৬৮ গোল করে দেশের সর্বকালের সেরা গোলদাতা হলেও মেসি সাম্প্রতিককালে কোনো বড় ট্রফি দিতে পারেননি দেশকে। শেষ বিশ্বকাপেও ব্যর্থ হয়েছিলেন তিনি। যা নিয়ে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছেন বার্সেলোনা তারকা। শুধু কেম্পেস নন।

আর্জেন্টিনাকে বিশ্বকাপ জেতানো সিজার লুইস মেনোত্তিও দলের এই হাল দেখে এতটাই ক্ষুব্ধ যে বলে দিয়েছেন, ‘‘দলটার যা অবস্থা তাতে প্রয়াত যোহান ক্রুয়েফ এবং পেপ গুয়ার্দিওলা কোচ হয়ে এলেও এই আর্জেন্টিনা দলের ব্যর্থতার ইতিহাস বদলাতে পারবে না।’’বর্তমানে আর্জেন্টিনা ফুটবল ফেডারেশনের ডিরেক্টর মেনোত্তি এখানেই থেমে থাকেননি। বলে দিয়েছেন, ‘‘নতুন করে সব কিছু ভাবা দরকার। অনেক উন্নতি দরকার এখন। শুধু দলের কোচ লিয়োনেল স্কালোনি নন, আমাদের সবার নতুন করে ভাবনাচিন্তা করা দরকার।’’ খোলোয়াড়দের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ উগরে দিয়ে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কোচের মন্তব্য, ‘‘ওরা বাইরে গিয়ে ক্লাব ফুটবলে যতটা সময় দেয়, দেশের জন্য ততটা দেয় না। দল নির্বাচনেও সমস্যা রয়েছে। দেশের নামী ক্লাবগুরোরও উচিত ফেডারেশনের দেখানো পথে কাজ করা। শুধু ফেডারেশনের সমালোচনা করলে চলবে না।’’।