এবার অস্ট্রেলিয়ায় উবারের উডুক্কু ট্যাক্সি

image_titleউবার এয়ার সেবার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডালাস এবং লস অ্যাঞ্জেলেসের পর তৃতীয় পাইলট শহর হিসেবে বাছাই করা হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার মেলবর্ন শহরকে-- খবর বিবিসি র।২০২০ সালে পরীক্ষামূলকভাবে যাত্রা শুরু করার কথা এই সেবার। আর ২০২৩ সালে বাণিজ্যিকভাবে এই সেবা চালুর লক্ষ্য নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।উবারের পক্ষ থেকে বলা হয়, আকাশ পথে নির্ভরশীলতা বাড়ানো হলে শহরে ট্রাফিক জ্যাম কমানো অনেক সহজ হবে।

উবার এলিভেট-এর বৈশ্বিক প্রধান এরিক অ্যালিসন বলেন, মূল শহরগুলো যেহেতু এগিয়ে চলেছে, ব্যক্তিগত গাড়ির ওপর অনেক বেশি নির্ভরশীলতা দীর্ঘমেয়াদী হবে না। রাস্তার জ্যাম কমাতে উবার এয়ার-এর অনেক বড় সম্ভাবনা রয়েছে। অ্যালিসন আরও বলেন, মেলবর্ন শহরের ব্যবসাকেন্দ্র থেকে এয়ারপোর্ট পর্যন্ত ১৯ কিলোমিটার যাত্রা এবার এয়ার-এর মাধ্যমে ১০ মিনিটে পাড়ি দেওয়া যাবে, যা গাড়ির চেয়ে প্রায় এক ঘন্টা কম।উডুক্কু ট্যাক্সি প্রকল্পের জন্য নাসা, মার্কিন সেনাবাহিনী এবং দুইটি প্লেন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করছে উবার। আগের বছর প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে বলা হয় উডুক্কু ট্যাক্সি বানাতে প্যারিসে একটি পরীক্ষাগার খোলা হবে।আগের মাসেই শেয়ার বাজারে নাম উঠেছে উবারের। কিন্তু প্রতিষ্ঠানের জন্য শেয়ার বাজারে প্রবেশ ছিল হতাশাজনক। এবার তাই নতুন সেবা নিয়ে পরীক্ষায় জোর দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।উডুক্কু ট্যাক্সি সেবা চালুর লক্ষ্যে কেবল উবার যে কাজ করছে এমন নয়। এয়ারবাসসহ বেশ কয়েকটি স্টার্ট-আপ প্রতিষ্ঠান এই খাতে নজর দিয়েছে।২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো ড্রোন ট্যাক্সি সেবার পরীক্ষা চালানো হয়েছে দুবাইয়ে।।