ঘুষ যে দেবে এবং নেবে উভয়ই অপরাধী প্রধানমন্ত্রী

image_titleশুধুমাত্র ঘুষ নিলেই নয়, যার বিরুদ্ধে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ উঠবে তাকেও ধরা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘুষ দেওয়াটাও অপরাধ। ঘুষ যে দেবে এবং নেবে উভয়ই অপরাধী। সে ভাবেই বিচার করতে হবে।

অপরাধ যারা করছে আর অপরাধে যারা উসকানিদাতা- তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবাই (দুদক কর্মকর্তা) তো একেবারে ধোয়া তুলসি পাতা নয়। সবাই যে শতভাগ সৎ হবেন তার নিশ্চয়তাও কেউ দিতে পারবে না।
আজ বুধবার জাতীয় সংসদে বিরোধী দলের সাংসদ রওশন আরা মান্নানের এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।
শাসন ঘর থেকেই শুরু করতে হয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোনো অপরাধে যদি তার দলেরও কেউ জড়িত থাকে তাদেরও ছাড় দেওয়া হচ্ছে না। কোনো আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কেউ অপরাধ করলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
সংসদে আজ প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কোনো দেশ যখন অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে উন্নত হয় তখন কিছু কিছু ক্ষেত্রে টাউট বাটপার বা বিভিন্ন ধরনের লোক সৃষ্টি হয়। তাদের দমন করা শুধুমাত্র আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীকে দিয়ে সম্ভব নয়, সামাজিকভাবেও করতে হবে।
তিনি এ জন্য দলমত-নির্বিশেষে সব সাংসদেরও সহযোগিতা কামনা করেন।
দুর্নীতি অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেতে পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমান দুদকের একজন পরিচালককে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ দেওয়ার কথা স্বীকার করার পর সংসদে এসব কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী। ডিআইজি মিজানুরের স্বীকারোক্তির কথা গত রোববার গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলেও আজ বুধবার পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে দৃশ্যমান ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অবশ্য আজ বলেছেন যে, ঘুষ দেওয়ার অপরাধে মিজানুরকে শাস্তি পেতে হবে।