ডিআইজি মিজানের বিচার হবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

image_titleদুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তাকে ঘুষ দেয়ার ঘটনায় পুলিশের ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। বুধবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এটা পরিষ্কার যে, তিনি দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ দিয়ে অপরাধ করেছেন। এ জন্য তার বিচার হবে।’স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তিনি কেন ঘুষ দিয়েছেন? নিশ্চয়ই তার কোনো দুর্বলতা আছে।

তা না হলে তিনি কেন ঘুষ দেবেন? দুর্বলতা ঢাকতে তিনি ঘুষ দিয়েছেন। তার বিরুদ্ধে আগের অভিযোগের ভিত্তিতে বিচার এখনো প্রক্রিয়াধীন।একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে গত রোববার প্রচারিত প্রতিবেদনে বলা হয়, পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানের বিরুদ্ধে পরিচালিত দুর্নীতির অনুসন্ধান থেকে তাকে দায়মুক্তি দিতে দুদক পরিচালক খন্দকার এনামুল বাসির ৪০ লাখ টাকা ঘুষের বিনিময়ে সমঝোতা করেন। তিনি রাজধানীর রমনা পার্কে বাজারের ব্যাগে করে ডিআইজি মিজানের কাছ থেকে ২৫ লাখ টাকা গ্রহণ করেন এবং বাকি ১৫ লাখ পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে দেয়ার কথা বলেন।প্রতিবেদনটি প্রচারিত হওয়ার পর তথ্য পাচার ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বাসিরকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে দুদক।একই দিন সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনের গ্রেপ্তার প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে মন্ত্রী বলেন, পালিয়ে যাওয়ার সব পথ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তিনি দেশেই আছেন। তাকে শিগগিরই গ্রেপ্তার করা হবে।ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ তদন্তে সত্য প্রমাণিত হওয়ার পর ২৭ মে এক আদালত তাকে গ্রেপ্তারের আদেশ দেয়।।