স্মিথ-ওয়ার্নারকে দুয়ো দেবে না পাকিস্তানের সমর্থকরা সরফরাজ

image_titleবল টেম্পারিং করে পাওয়া এক বছরের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ করে মাঠে ফিরলেও সেই ঘটনার রেশ এখনও পিছু ছাড়েনি স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারের। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডের মাটিতে বিশ্বকাপ খেলতে গিয়ে বারবার উগ্র সমর্থকদের বিদ্রুপ-দুয়োর লক্ষ্যবস্তু হচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার দুই ক্রিকেটার। তবে পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ আশ্বস্ত করছেন, তার দেশের ক্রিকেটপ্রেমী ভক্তরা এমন অপ্রত্যাশিত কাণ্ড ঘটাবেন না।
অস্ট্রেলিয়ার সবশেষ ম্যাচ ছিল ভারতের বিপক্ষে।

সেদিন দলটির সাবেক অধিনায়ক স্মিথকে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয়। ভারতের ইনিংসে থার্ড ম্যানে ফিল্ডিংয়ের সময় তাকে লক্ষ্য করে নানা কটু বাক্য ছুঁড়ে দেয় গ্যালারিতে উপস্থিত ভারতীয় সমর্থকরা। তাকে প্রতারক ও বলা হয়। তবে স্পোর্টসম্যানশিপের অনন্য নিদর্শন রেখে সেদিন স্মিথকে অপ্রস্তুত অবস্থা থেকে উদ্ধারে এগিয়ে গিয়েছিলেন ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ব্যাটিংয়ের মাঝেই নিজ দেশের সমর্থকদের চুপ থাকতে এবং দুয়ো না দিতে আহ্বান করেছিলেন তিনি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে দর্শকদের হয়ে স্মিথের কাছে ক্ষমাও চেয়েছিলেন কোহলি।
শঙ্কা জেগেছে, অসিদের বিপক্ষে ম্যাচে পাকিস্তানের সমর্থকরাও এমন কাজ করতে পারেন। তবে সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন পাকিস্তানের দলনেতা সরফরাজ। ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, আমার মনে হয় না পাকিস্তানের লোকজন এমন কিছু করবে। পাকিস্তানীরা ক্রিকেট ভালোবাসে। আর তারা খেলোয়াড়দেরও ভালোবাসে।
বুধবার (১২ জুন) টনটনের কাউন্টি গ্রাউন্ডে মুখোমুখি হচ্ছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া ও সাবেক চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান। তাদের দ্বৈরথ শুরু বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায়।
অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাকিস্তানের সাম্প্রতিক রেকর্ড খুবই হতাশাজনক। গেল মার্চে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেছিল দুদল। সেখানে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস ছিল না।

অসিরা ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করেছিল পাকিস্তানকে। সবমিলিয়ে দুদলের সবশেষ ১৫ ওয়ানডের মাত্র একটিতে জিতেছে পাকিস্তান।
তবে ওয়ানডের এক নম্বর দল ও বিশ্বকাপের আয়োজক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে ফুরফুরে মেজাজে থাকা সরফরাজরা মাথা ঘামাচ্ছেন না পুরনো ক্ষত নিয়ে, আমি মনে করি, সেসব এখন অতীত। আমরা সেসব নিয়ে ভাবছি না। আসলে আমরা কেবল অসিদের বিপক্ষে ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। আমাদের মনোবল বেশ চড়া। আর মোমেন্টামও বেশ উঁচু। আশা করছি, আমরা ভালো কিছু করব।