নোয়াখালী হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের পলেস্তরা খসে আহত ১০

image_titleবুধবার সকাল পৌনে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে হাসপাতালের তত্বাবধায়ক মো. খলিল উল্যাহ জানান।
আহতদের একই হাসপাতালের নতুন ভবনের সার্জারি বিভাগে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে শিশু বিভাগের বিভাগের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের ছাদের বড় একটি অংশ খসে পড়ে। এ সময় সাত শিশু রোগীসহ তিনজন আহত হয়।


এর আগে মঙ্গলবার ওই ওয়ার্ডের ছাদ থেকে সামান্য কিছু অংশ খসে পড়েছিল বলেও জানান তারা। 
হাসপাতালের তত্বাবধায়ক খলিল উল্যাহ বলেন, ২০০৮ সালে শিশু বিভাগের ছাদের পলেস্তরা খসে পড়েছিল। এরপর বিভিন্ন সময় এ ওয়ার্ডে পলেস্তরা খসে পড়ে শিশু,সেবিকা ও চিকিৎসকেরা আহত হয়েছেন।
২০১৫ সালের দিকে ভবনটিকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয় বলে  জানান তিনি।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, শিশু বিভাগে সরকারিভাবে মোট ২৮টি বেড রয়েছে। কিন্তু প্রতিদিন গড়ে দেড়শ রোগী ভর্তি থাকে। যে ওয়ার্ডের ছাদের অংশ খসে পড়েছে সেখানে ৭১জন শিশু ভর্তি ছিল।
এদিকে জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে শিশু ওয়ার্ড থেকে রোগীদের সরিয়ে নিতে এবং দ্রুত নতুন শেড নির্মাণ করার নির্দেশ দেন।