অস্ট্রেলিয়ান পেসারকে মালিঙ্গার টিপস

আইপিএল থেকে পিছে লেগে আছেন মার্কাস স্টোইনিস। লাসিথ মালিঙ্গার কাছ থেকে স্লোয়ার ডেলিভারির ‘টিপস’ তার চাই-ই চাই। অস্ট্রেলিয়ান পেসার অবশেষে সফল হলেন বিশ্বকাপ ওয়ার্ম-আপ ম্যাচে। অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ শেষে স্টোইনিসের কাছে স্লোয়ারের রহস্য উন্মোচন করেছেন মালিঙ্গা।


বিশ্বকাপ প্রস্তুতি একেবারেই ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে বাজেভাবে হারের পর অস্ট্রেলিয়ার সামনেও অসহায় আত্মসমর্পণ করতে হয় লঙ্কানদের। সাউদাম্পটনে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ৫ উইকেটে হারের ওই ম্যাচের পর স্টোইনিসকে দেওয়া মালিঙ্গার বোলিং পরামর্শের ভিডিও আইসিসি ভাগাভাগি করে তাদের টুইটার পেজে।
সাউদাম্পটনের মুহূর্তটা মালিঙ্গা পরে বিস্তারিত জানিয়েছেন সংবাদ সম্মেলনে। স্টোইনিসকে স্লোয়ার ডেলিভারি শিখিয়েছেন লঙ্কান পেসার। উইকেট শিকারে মালিঙ্গার বড় অস্ত্র তার ভ্যারিয়েশন। এবারের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের শিরোপা জয়ে এই পেসার তার স্লোয়ারে ঘায়েল করেছিলেন চেন্নাই সুপার কিংসকে। তার দুর্দান্ত বোলিংয়ে ফাইনালের শেষ বলে ১ রানের নাটকীয় জয় পায় মুম্বাই।
সাউদাম্পটনের ম্যাচের পর মালিঙ্গা বলেছেন, ‘ছোট ফরম্যাটের ম্যাচে ভ্যারিয়েশন খুব গুরুত্বপূর্ণ। আইপিএল চলার সময়ও সে (স্টোইনিস) আমার কাছে জানাতে চেয়েছিল, আমি কিভাবে ‍এটা করি।’ সঙ্গে যোগ করেছেন, ‘আমি তাকে টিপস দিয়েছি— এভাবেই তো ক্রিকেট এগিয়ে যাচ্ছে। আমার কাছে কেউ জানতে চাইলে, আমি তাকে সাহায্য করার চেষ্টা করি। কিভাবে স্লোয়ার দিতে হয়, কোন পরিস্থিতিতে এটা করতে হয়, কেনই বা স্লোয়ার দিতে হবে— সবই আমি ভাগাভাগি করি।’
৩৫ বছর মালিঙ্গা বোলিংয়ে আগের সেই গতি নেই। যদিও ভ্যারিয়েশন দিয়ে এখনও ডেথ ওভারে সেরা বোলারদের একজন তিনি। জানিয়েছেন, অনুশীলনে কঠোর পরিশ্রম তার এই সাফল্যের নেপথ্যে।

তার মতে, ‘সবার আগে দক্ষতা, এরপর হলো ম্যাচের পরিস্থিতি গণনা করতে পারার সামর্থ্য। এই দুটো বিষয় বোলারের খুব দরকার (ভালো করতে)।’ আইসিসি ওয়েবসাইট