গুজরাটে কোচিং সেন্টারে অগ্নিকাণ্ডে ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

image_titleভারতের গুজরাটের সুরাট শহরের একটি বহুতল ভবনে অবস্থিত কোচিং সেন্টারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ১৯ শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির সরকারি কর্মকর্তারা।
সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া প্রত্যক্ষদর্শীদের ধারণকৃত ভিডিওতে দেখা গেছে, আগুন থেকে বাঁচতে বেশ কিছু শিক্ষার্থী ওই ভবনের ছাদ থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ছে।
কোচিং সেন্টারটির বেশির ভাগ শিক্ষার্থীর বয়স ১৪ থেকে ১৭ বছরের মধ্যে ছিল বলে জানিয়েছেন আমাদের নয়াদিল্লী সংবাদদাতা।
আজ (২৪ মে) বিকেলে সুরাটের সারথানা এলাকার বহুতল ভবনটির একদম ওপরের দুটি তলায় এই আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

কর্মকর্তা বলছেন, আগুনের ধোঁয়ায় চারপাশ ছেয়ে যায়। স্থানীয়দের উদ্ধার কাজে সহায়তা করতে দেখা গেছে। তবে, অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত কীভাবে হয়, সেই বিষয়ে এখনো কিছু জানা যায়নি।
এক দমকল কর্মকর্তা জানান, আগুন নেভাতে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ফায়ার ইঞ্জিন পাঠানো হয়েছে। শিক্ষার্থীরা ওই ভবনের চতুর্থ ও পঞ্চম তলায় ছিলো। অনেকে আগুন ও ধোঁয়া থেকে বাঁচতে জানালা দিয়ে লাফ দেয়।
আগুন পুরোপুরি নেভানোর কাজ চলছে বলেও জানান তিনি।
এ ঘটনায় সমবেদনা জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, সুরাটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আমি শোকাহত। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে আছি। আশা করি আহতরা দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন।
এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গুজরাট রাজ্য সরকার ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারকে ৪ লাখ রুপি করে সহায়তা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।