ছয় মাস নয়, তিন মাসের বিশ্রাম পাচ্ছেন সাকিব

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) চিঠি দিয়ে টেস্ট ক্রিকেট থেকে ছয় মাসের বিশ্রামের আবেদন জানিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। সেই আবেদনের ভিত্তিতেই সাদা পোশাকের ফরম্যাট থেকে বিশ্রাম পাচ্ছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। কিন্তু সেটা ছয় মাস নয়, তিন মাসের। অর্থাৎ, ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেই সাদা পোশাকে মাঠে নামবেন তিনি।সেক্ষেত্রে আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে থাকছেন না এই বাঁ-হাতি স্পিনার। শুধু সীমিত ওভারের ক্রিকেটই খেলবেন সাকিব। জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঢাকা টেস্টের পরই বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে টেস্ট থেকে বিশ্রামের কথা জানান। তারপরই আনুষ্ঠানিক চিঠি দেন তিনি। যদিও সাকিবের চিঠি পাওয়ার আগেই এ নিয়ে বোর্ড পরিচালকদের সঙ্গে কয়েকদফা সভা করেছেন নাজমুল হাসান পাপন। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে, সাকিব শুধু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজটাই বিশ্রাম পাবেন। আগামী ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজেই ফিরতে হবে তাকে। সাকিব ছয় মাসের বিশ্রামে গেলে, চারটি টেস্ট ম্যাচে তাকে ছাড়া খেলতো বাংলাদেশ দল। সেক্ষেত্রে শুধুমাত্র দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুই টেস্টে দলের শীর্ষ এই ক্রিকেটারকে পাচ্ছে না মুশফিকুর রহিমের দল। টেস্ট দিয়েই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিজ শুরু করবে বাংলাদেশ। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে প্রথম টেস্ট, দ্বিতীয় টেস্ট ছয় অক্টোবর থেকে শুরু। তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হবে এরপর।সাকিবের অভিষেকের পর একবারই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গেছে বাংলাদেশ দল। ২০০৮ সালে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দুটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। সেখানেও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে ঝলমলে ছিলেন সাকিব। প্রথম ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচে নিয়েছিলেন ছয়টি উইকেট।