তামিমদের জন্য তর সইছে না পাকিস্তানের

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়াম প্রস্তুত। প্রস্তুত দেশটির ক্রিকেটাররা। পাকিস্তানের দর্শকরাও প্রস্তুত। এখন শুধু অপেক্ষা বিশ্ব একাদশের খেলোয়াড়দের জন্য। পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে। দীর্ঘদিনের অপেক্ষার পালা ফুরাবে আগামী মঙ্গলবার। সেদিন গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে মাঠে নামবে পাকিস্তান।আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) উদ্যোগেই পাকিস্তানে ক্রিকেট ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ভারত ছাড়া টেস্ট খেলুড়ে সব দেশের ক্রিকেটাররা খেলবেন এই সিরিজে। বাংলাদেশ থেকে প্রতিনিধিত্ব করবেন তামিম ইকবাল। পাকিস্তানের বিপক্ষের এই সিরিজের জন্য ইতিমধ্যে বিশ্ব একাদশের প্রায় সব খেলোয়াড় দুবাইয়ে পৌঁছেছেন। সেখানে দুই দিনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন তারা। ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ -এর জন্য সরাসরি লাহোরে পৌঁছেছেন ম্যাচ রেফারি রিচি রিচার্ডসন। ২০০৯ সালে লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের বাইরে শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের বহনকারী বাসের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়। ওই ঘটনার পর জিম্বাবুয়ে ছাড়া আর কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দল সেখানে সফর করেনি। পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরানোর জন্য অনেক আগ থেকেই জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে দেশটির সরকার ও ক্রিকেট বোর্ড। জিম্বাবুয়ে ছাড়া কোনো দেশ সফর না করলেও আইসিসি র উদ্যোগে এবার সে দেশে ক্রিকেট ফিরছে। সুষ্ঠুভাবে সিরিজ সম্পন্ন হলে পাকিস্তানে সফর করবে শ্রীলঙ্কা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তাই ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ কে পাকিস্তানের মাটিতে ক্রিকেট ফেরার বড় দরজা মনে করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়দের স্বাগত জানানোর জন্য মুখিয়ে আছে পাকিস্তানের খেলোয়াড় ও দর্শকরা। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। বিশ্ব একাদশের আগমনের জন্য তার তর সইছে না বলে জানালেন সেখানে। সরফরাজের আশা, এ সিরিজ দিয়ে পাকিস্তান নিয়ে ভুল ভাঙবে সবার, আমি নিশ্চিত, বিশ্ব একাদশের এই সফর দিয়ে পুরো ক্রিকেট দুনিয়া ও সংবাদমাধ্যম পাকিস্তানকে আরো ভালোভাবে জানবে ও বুঝবে। তারা বুঝবে, পাকিস্তানিরা শান্তিপ্রিয় ও অতিথিপরায়ণ জাতি। পাকিস্তানের মানুষ ক্রিকেট খেলাটা অসম্ভব ভালোবাসে। তিনি আরো বলেন বিশ্ব একাদশের খেলোয়াড়দের আগমনের তর সইছে না। আমি নিশ্চিত, তাদের আগমন আমাদের জন্য অনেক উপকার হবে। তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ। বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের তিন টি-টোয়েন্টি ১২, ১৩ ও ১৫ সেপ্টেম্বর। ম্যাচ রেফারি থাকবেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের রিচি রিচার্ডসন। আর আম্পায়ার হিসেবে থাকবেন পাকিস্তানের আলিম দার, আহসান রাজা ও শজাব রাজা।বিশ্ব একাদশের খেলোয়াড় ফ্যাফ ডু প্লেসি (অধি:), ডেভিড মিলার, মরনে মরকেল, টিম পেইন, থিসারা পেরেরা, ইমরান তাহির, ড্যারেন স্যামি, হাশিম আমলা, গ্রান্ট ইলিয়ট, স্যামুয়েল বাদরি, জর্জ বেইলি, তামিম ইকবাল, পল কলিংউড ও বেন কাটিং।