‘প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ৩০ থেকে ৩৫ পয়সা বাড়তে পারে’

প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম ৩০ থেকে ৩৫ পয়সা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। তিনি বলেন, ‘দাম বৃদ্ধির হার ৫ শতাংশ। বিদ্যুতের দাম সমন্বয় করতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।’৬ সেপ্টেম্বর বুধবার সচিবালয়ে বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু এ সব কথা বলেন। নসরুল হামিদ বলেন, ‘সরকার যদি বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে (বিপিডিপি) সরাসরি সাশ্রয়ী মূল্যে জ্বালানি তেল আমদানির সুযোগ দেয়, তাহলে বিদ্যুতের দাম নাও বাড়তে পারে।’বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কবে নাগাদ চূড়ান্ত হবে জানতে চাইলে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এটা নির্ভর করছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) ওপর। সংস্থাটি ইতোমধ্যে গণশুনানির দিন নির্ধারণ করেছে। এই শুনানির ভিত্তিতে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তার ভিত্তিতে দাম বৃদ্ধির বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।’তিনি বলেন, ‘সরকার লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে আগামী এক বছরে ৩ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে। জুন মাস থেকে এই ৩ হাজার বিদ্যুৎ উৎপাদনের কাজ শুরু হবে।’ঈদে বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সমস্যা দেখা দিয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এবারের ঈদে বন্যাকবলিত এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগে সমস্যা হয়েছে। বন্যায় বিদ্যুতের খুঁটি ভেঙে গেছে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় দ্রুত সবকিছুই মেরামত করা হচ্ছে।