যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকের বাবা চিরনিদ্রায় শায়িত

দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক এবং জাতীয় প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি সাইফুল আলমের বাবা আলী আরশাদ মিয়া ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ... রাজিউন)।বুধবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের বাসায় তার মৃত্যু হয়।মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৭ বছর। তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে, চার মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।বুধবার বাদ জোহর পশ্চিম রাজাবাজার জামে মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর রাজধানীর মোহাম্মদপুর কেন্দ্রীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।আলী আরশাদ মিয়া ১৯৩১ সালে চাঁদপুর জেলার সদর থানার বাখরপুর গ্রামে এক সমভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে তিনি দিনযাপন করেছেন।সম্প্রতি তিনি মাইল্ড স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর পান্থপথের সমরিতা হাসপাতালে প্রায় ৩ সপ্তাহ চিকিৎসাধীন ছিলেন। শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে বাসায় ফিরিয়ে নেয়া হয়। এর পাঁচ দিনের মাথায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।তার মৃত্যুতে যুগান্তর পরিবার গভীর শোক প্রকাশ করেছে। যুগান্তরের সাংবাদিক, কর্মকর্তাসহ সর্বস্তরের কর্মচারীরা মরহুমের জানাজা এবং দাফনে অংশগ্রহণ করেন।আলী আরশাদ মিয়ার মৃত্যুতে যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম বাবুল, সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী এবং দৈনিক যুগান্তরের প্রকাশক অ্যাডভোকেট সালমা ইসলাম এমপি, যমুনা গ্রুপের পরিচালক (হিসাব) এস এম আব্দুল ওয়াদুদ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। পাশপাশি তারা শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।দৈনিক যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলমের বাবা আলী আরশাদ মিয়ার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।এক শোকবার্তায় তিনি মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন। পাশাপাশি তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। মরহুম আলী আরশাদ মিয়ার সুসন্তানদের গৌরবোজ্জ্বল কীর্তি ও মানবিক কর্মকাণ্ডের জন্য তিনি জান্নাতুল ফেরদৌস পাবেন এমন দোয়া করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ।যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলমের বাবার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এবং বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিবেশ ও বন উপমন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল মতিন খসরু, আইনবিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি।শোক জানিয়েছেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, বিএনপির স্থায়ী কমিটি সদস্য লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক মন্ত্রী মেজর (অব.) কামরুল ইসলাম, বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার প্রেসিডিয়াম সদস্য আজম খান, প্রেস অ্যান্ড পলিটিক্যাল সেক্রেটারি সুনিল শুভ রায়, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আসম আব্দুর রব, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, গণফোরামের নিবার্হী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসিন মন্টু, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমেদ কামরান।শোক জানিয়ে মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেছেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক আবুল কলাম আজাদ, সিনিয়র সাংবাদিক দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান বদিউর রহমান, দুদকের সাবেক মহাপরিচালক ব্রি. জে. (অব.) আব্দুস সালাম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান, জাতীয় প্রেসক্লাবের সহসভাপতি ও বাংলাদেশের খবরের সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া, বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক মহাসচিব কুতুবউদ্দিন আহমেদ, অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সহসভাপতি এবং স্কয়ার টয়লেটট্রিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু, শেলটেক এমডি তৌফিক এম সেরাজ, ধানমণ্ডি ক্লাব লিমিটেডের প্রেসিডেন্ট হারুনুর রশিদ, সাবেক ফটবলার দেওয়ান শফিঊল আরেফিন টুটুল, বাদল রায়, আবদুল গফফার, শেখ মোহাম্মদ আসলাম, হাসানুজ্জামান খান, শফিকুল ইসলাম মানিক, বাফুফে সদস্য ফজলুর রহমান বাবুল।যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলমের বাবার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহাম্মদ শফিকুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন।বুধবার এক বিবৃতিতে নেতারা এই শোক জানান পাশপাশি শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।আলী আরশাদ মিয়ার মৃত্যুতে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বুধবার এক বিবৃতিতে শোক প্রকাশ করেন এবং মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদকের বাবার মৃত্যুতে আরও শোক জানিয়েছে দৈনিক আমার কাগজের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ফজলুল হক ভ‚ইয়া রানা, ঢাকাস্থ নেত্রকোনা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ফারুক তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদ করিম, রিলিজিয়াস রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক উবায়দুল্লাহ বাদল, জামালপুর সাংবাদিক ফোরামের আহ্বায়ক বদিউজ্জামান ও সদস্যসচিব উবায়দুল্লাহ বাদুল, চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি কলিম সরয়ার ও সাধারণ সম্পাদক সুকলাল দাস, চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি নাজিমউদ্দীন ও সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি আজিজ আহমেদ সেলিম , নবনির্বাচিত সভাপতি তাপস দাশ পুরকায়স্থ ও সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, কুমিল্লা প্রেসক্লাবের সভাপতি রমিজ খান ও সাধারণ সম্পাদক মো. লুৎফর রহমান, সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাড. শামসুন্নাহার বেগম শাহানা, সাধারণ সম্পাদক শেরগুল আহমেদ, শোক জানিয়েছে সিলেটের ওসমানীনগর প্রেসক্লাব নেতারা, যশোর নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবের নেতারা, ময়মনসিংহের গৌরিপুর যুগান্তর স্বজন সমাবেশ ও সাংবাদিক নেতারা, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাব নেতারা, সিলেটের জকিগঞ্জ প্রেসক্লাব নেতারা, বড়লেখা প্রেসক্লাব, জগন্নাথপুর প্রেস ক্লাব, সাতকানিয়া প্রেসক্লাব, মাওলানা মতীন স্মৃতি সংসদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সরকার ও মহাসচিব দেলোয়ার হোসেন সাঈদ, আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সভাপতি হুমায়ুন কবির ও শফিকুল বাহার মজুমদার টিপু।