‘বিশ্বকাপ ইতিহাসের কারণে শ্রদ্ধা পাবে আর্জেন্টিনা’

রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকেট পাওয়া নিয়ে এক সময় অনিশ্চয়তায় পড়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। বাছাই পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে লিওনেল মেসির হ্যাটট্রিকে একুয়েডরকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সব অনিশ্চয়তা কাটিয়ে বিশ্বকাপে উঠে হোর্হে সাম্পাওলির দল।দুইবারের বিশ্বকাপ জয়ী দলটি ২০১৪ সালে ব্রাজিল বিশ্বকাপে হয় রানার্সআপ। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফাইনালের অতিরিক্ত সময়ে মারিও গোটসের একমাত্র গোলে জার্মানির কাছে হারে তারা।এবারের বিশ্বকাপে বাছাই পর্বটা মোটেও আশানুরূপ ছিল না আর্জেন্টিনার। তিনজন ভিন্ন কোচের অধীনে এই পথ পাড়ি দেওয়া দলটিকে বিশ্বকাপের মূল পর্বের টিকিট পেতে অপেক্ষা করতে হয় শেষ ম্যাচ পর্যন্ত। তবে বড় মঞ্চে দলটির ভাল খেলার সুনামের কারণে আর্জেন্টিনা শ্রদ্ধা পাবে বলে মনে করেন চেলসির গোলরক্ষক কাবাইয়েরো। আমি যখন বিশ্বকাপের গ্রুপ নির্ধারনের ড্র দেখছিলাম তখন আমি জাতীয় দলের বাইরে। চেলসির লকার রুমে আমার নাম উল্লেখ করা হয়নি, তবে গুঞ্জনটা ছিল এমন যে অনেক ভাগ্যের জোরে শেষ ম্যাচে এসে আর্জেন্টিনা কোয়ালিফাই করেছে। তারা ইতিমধ্যে ভিন্নভাবে ভাবতে শুরু করেছে। আর্জেন্টিনার বিগত বিশ্বকাপগুলো, তাদের যে খেলোয়াড় আছে, তারা যেভাবে খেলে এবং যেভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সেসবের জন্য দলটিকে শ্রদ্ধা করা হয়। সম্ভাব্য লড়াইগুলোতেও তারা আমাদের অনেক সম্মান দেখাবে। মস্কোয় বাংলাদেশ সময় শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে সাম্পাওলির দলের রাশিয়া বিশ্বকাপ মিশন। ডি গ্রুপে তাদের অপর দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়া।