বিশ্বকাপে সফল হতে মরিয়া নেইমার

ফেব্রুয়ারিতে লিগ ওয়ানের ম্যাচে পায়ের পাতার হাড় ভাঙার পর থেকে মাঠের বাইরে ২৬ বছর বয়সী এই তারকা। সম্প্রতি বল নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছেন। বিশ্বকাপের আগে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ব্রাজিলের প্রীতি ম্যাচেই তাকে আশা করছেন দলের চিকিৎসক।২০০২ বিশ্বকাপের পর চার আসরে সাফল্য পায়নি টুর্নামেন্টের সবচেয়ে সফল দল ব্রাজিল। এবারে সেই ব্যর্থতা ঘোচাতে চান বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলার।এক সাক্ষাৎকারে নেইমার বলেন, ফুটবল খেলাটা আমাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করে। মাঠে থাকাতেই আমার সবচেয়ে বেশি আনন্দ। বিশ্বকাপ বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা। আমি খেলতে এবং চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। শিরোপাটা আমার পেতেই হবে। ১৭ জুন সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে তিতের শিষ্যদের বিশ্বকাপ যাত্রা। ই গ্রুপে তাদের অপর দুই প্রতিপক্ষ কোস্টা রিকা ও সার্বিয়া।প্রায় তিন মাস মাঠের বাইরে থাকলেও ফেরার খুব কাছে পৌঁছে গেছেন বলে মনে করেন নেইমার। আমি এরই মধ্যে বল নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছি। ভালো ও স্বস্তি অনুভব করছি। অবশ্যই আমার সামান্য ভয় আছে। কিন্তু ধীরে ধীরে আমি ফিরে আসছি।