বাস-ট্রাক সংঘর্ষে বিচ্ছিন্ন হল যাত্রীর হাত

সদর থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বেদগ্রাম এলাকায় ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।আহত হৃদয় মিনার (৩০) সদর উপজেলার কাড়ারগাতী গ্রামের রবিউল মিনার ছেলে।হৃদয় টুঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেসে করে বাড়ি থেকে ঢাকায় যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় পড়েন বলে রবিউল জানান।ওই বাসের যাত্রী ছিলেন ঢাকার ইডেন কলেজের সম্মান শেষ বর্ষের ছাত্রী রাহিমা মনি।তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বাসের একেবারে পেছনে ডান পাশের ছিটে বসে ছিলেন হৃদয়। বাসটি বেদগ্রাম পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সময় বাস ও ট্রাকের পেছনের অংশের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই হৃদয়ের বাহু থেকে ডান হাতটি বিচ্ছিন্ন হয়ে নিচে পড়ে যায়। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে গোপালগঞ্জ সরদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠান হয়। ট্রাকটি বেপরোয়া গতিতে বাসকে অতিক্রম করছিল জানিয়ে রাহিমা বলেন, ট্রাকটি বাসের পেছনে সজোরে আঘাত করে। ট্রাকচালকের দোষেই তার হাত বিচ্ছিন্ন হয়েছে। আহত হৃদয় টুঙ্গীপাড়া এক্সপ্রেসের অন্য একটি বাসের চালকের সহকারী হিসেবে কাজ করেন বলে তার বাবা রবিউল জানিয়েছেন।পুলিশ ট্রাক বা চালককে ধরতে পারেনি। ধরার জন্য অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন ওসি মনিরুল ইসলাম।