নজরুলের চেতনা যেন ভুলে না যাই: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কবি কাজী নজরুল ইসলাম অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য আমাদের যে শক্তি, চেতনা দিয়ে গেছেন তা যেন আমরা ভুলে না যাই।  তিনি বলেন, কাজী নজরুল সবসময় সাম্যের কথা বলেছেন। নজরুলের সে বাণী আমরা যেন যেন কখনো ভুলে না যাই। তাকে কারাগারে পর্যন্ত যেতে হয়েছে অন্যায়ের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করতে গিয়ে। তবু তিনি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেননি।শনিবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আসানসোলের কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দিয়ে বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।শেখ হাসিনা বলেন, বাংলা ভাগ হলেও নজরুল ভাগ হয়নি, কখনো ভাগও হতে পারে না। আমাদের ত্রিশালে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় আছে। সেখানে নজরুলেকে নিয়ে গবেষণা হয়। দুই বাংলা মিলে যৌথভাবে নজরুলকে নিয়ে আরও গবেষণা করতে হবে।বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন আজ শনিবার পালন করা হচ্ছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে। এ উপলক্ষে বর্ধমানের আসানসোল শহরে কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষ সমাবর্তনের আয়োজন করে। এ অনুষ্ঠানেই আজ শনিবার দুপুরে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রি গ্রহণ করেন।ডি-লিট প্রাপ্তির পর অনুভূতি জানাতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা অন্যরকম ভালো লাগা। পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক উপাধির প্রস্তাব আসে কিন্তু নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় যখন এই ডিগ্রির প্রস্তাবটা পাই তখন না করতে পারিনি। কারণ নজরুল আমাদের বিশেষ আবেগের জায়গা। তার নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উপাধি পেলে আরও বেশি ভালো লাগে।  অনুষ্ঠানে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নুর এবং সংস্কৃতি ও রাজনৈতিক অঙ্গনের বেশ কয়েকজন প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।