ঢাবিতে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৬

আসন্ন সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ছাত্রলীগের দু গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ছয়জন।আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মধুর ক্যান্টিনে সম্মেলন নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে এ ঘটনা ঘটে।আহতরা হলেন- ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের উপ-নাট্য ও বিতর্ক বিষয়ক সম্পাদক ইমরুল হাসান নিশু, সহ-সম্পাদক ইমরান জোয়ার্দার, ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য মাহবুব হোসেন খান, সূর্যসেন হল শাখা ছাত্রলীগের শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক মেশকাত হাসান, স্যার সলিমুল্লাহ মুসলিম হল শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি এস এম কামাল উদ্দিন এবং স্যার এ এফ রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সাবেক কর্মী সাগর রহমান।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে মধুর ক্যান্টিন থেকে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বের হয়। তখন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজন কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের নিয়ে কথা বলতে যায়। এসময় ছাত্রলীগের আমিনুল ইসলাম বুলবুল, সাগর হোসেন, মিশু, মিশকাতসহ ১৫-২০জন নেতাকর্মী তার কাছে সম্মেলনের বিষয়ে প্রশ্ন তুলে। সোহাগ তাদের সঙ্গে কথা না বলতে চাইলে তারা সোহাগের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তেড়ে আসেন। এসময় পাশে থাকা সোহাগের অর্ধশতাধিক সমর্থক তাদেরকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এতে সম্মেলন প্রত্যাশী ৬ জন আহত হন।ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আরেফিন সিদ্দিক সুজন বলেন, আমরা সভাপতিকে বলেছি ছাত্রলীগে থেকে যারা কোটা সংস্কার নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে। এক পর্যায়ে সম্মেলনের বিষয়ে প্রশ্ন তুললে সোহাগ ক্ষেপে যায়। পরে সোহাগের সঙ্গে নেতাকর্মীরা চড়াও হয়।এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, যারা সম্মেলনের বিষয়ে কথা বলতে এসেছিল তারা বিভিন্ন হলে বহিস্কৃত। তাদের বিরুদ্ধে চুরি ছিনতাইসহ বিভিন্ন অভিযোগ আছে।