ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন চূড়ান্ত হবে: স্পিকার

সম্পাদক-সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট সবার মতামতকে গুরুত্ব দিয়েই জাতীয় সংসদে উত্থাপিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন চূড়ান্ত হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।তিনি বলেছেন, এক্ষেত্রে ইতিমধ্যে উত্থাপিত দাবিগুলো বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আইনটির বিষয়ে অনেকে মতামত দিয়েছেন। প্রয়োজনে আরও মতামত নেয়া হবে।বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে আয়োজিত ইফতার পার্টিতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিএফইউজে সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল।অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। বক্তৃতা করেন বিএফইউজে মহাসচিব ওমর ফারুক, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, বিএফইউজে কোষাধ্যক্ষ মধুসূদন মণ্ডল, ডিইউজে সভাপতি আবু জাফর সূর্য, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী ও যুগ্ম সম্পাদক আকতার হোসেন এবং ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম।অনুষ্ঠানে বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে সংসদীয় গণতন্ত্রের ধারা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়ে স্পিকার বলেন, সাংবাদিকদের দাবি বাস্তবায়নে ইতিমধ্যে সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা প্রণয়নের কাজ চলছে। নবম ওয়েজবোর্ড দ্রুতই প্রস্তাব পেশ করবে এবং তা বাস্তবায়নে কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হবে। তিনি এ বিষয়ে তথ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেন, নতুন করে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে গণতন্ত্রের পথে যাত্রা শুরু করেছে। ইতিমধ্যে উন্নয়নের বিস্ময়কর ধারায় এগিয়ে যাচ্ছে। জঙ্গি ও মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু হয়েছে। এ ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি সাংবাদিক সমাজের সহযোগিতা কামনা করেন। ঈদের পরই সাংবাদিকদের মহার্ঘ ভাতার প্রজ্ঞাপন জারি হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন।