খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৫ জুলাই

হরতাল-অবরোধে ৪২ জনকে পুড়িয়ে হত্যা ও রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ চার আসামির বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৫ জুলাই দিন ধার্য করেছেন আদালত।বৃহস্পতিবার মামলার প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন পুলিশ তা দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম মো. খুরশীদ আলম প্রতিবেদন দাখিলের ওই দিন ধার্য করেন।মামলার অপর আসামিরা হলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এমাজউদ্দিন আহম্মেদ, ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী ও স্থায়ী কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম মিয়া।আদালত সূত্র জানায়, ২০১৫ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী মামলাটি দায়ের করেন। দণ্ডবিধি ৩০২, ১০৯ ও ১২০ (বি) ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের চলমান অবরোধ ও হরতালে ২০১৫ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৪২ জনকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে বিভিন্ন পত্রিকার সংবাদের উদ্ধৃতি দিয়ে মামলার অভিযোগে বলা হয়। নিহতদের মধ্যে ১৩ জানুয়ারি আড়াই বছরের শিশু সাফির ও জেসমিন আক্তার, ১৫ জানুয়ারি স্কুলছাত্র রাজন আলী, বাসচালকের সহকারী তোফাজ্জল ও ট্রাকচালকের সহকারী সোহাগ বিশ্বাম এবং ২৭ জানুয়ারি ট্রাকচালক আব্দুর রহমান ও বকুল দেবনাথের কথা উল্লেখ রয়েছে।অভিযোগে আরও বলা হয়, হত্যাকাণ্ডের দায়ভার প্রধান হিসেবে খালেদা জিয়াসহ অপর তিন আসামির ওপর বর্তায়। অন্যদিকে অনির্দিষ্টকালের অবরোধ ও হরতাল দিয়ে মানুষ হত্যা রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধঘোষণার শামিল হিসেবে তা রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধ।