ক্রিকেটার ও চিয়ার লিডারদের সম্পর্ক কী?

ক্রিকেটারদের চার-ছক্কা দেখে চিয়ার লিডাররা নাচেন। দলের বোলারের আগুনে বোলিংয়ে বিপক্ষের ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরলেও একই দৃশ্য দেখা যায় ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে।তবে ভারতীয় চিয়ার লিডারদের ব্যক্তিগতভাবে জানেন ক্রিকেটাররা। ক্রিকেটার-চিয়ার লিডাররা একে অপরকে কিন্তু চেনেনই না। দেখাসাক্ষাতের উপায়ও বন্ধ।অতীতে নৈশভোজে ক্রিকেটার ও চিয়ার লিডারদের মোলাকাত হতো। কথাবার্তা হতো। সেই কথাবার্তা গড়াত বহু দূর। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড আইপিএল-এর নৈশভোজের ওপরে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। বোর্ডের সিদ্ধান্তেই চিয়ার লিডারদের সঙ্গে ক্রিকেটারদের সাক্ষাৎও নিষিদ্ধ।অতীতে চিয়ার লিডার ও ক্রিকেটারদের নিয়ে বিতর্ক কম হয়নি। প্রথমবারের আইপিএল-এ বিতর্ক অন্য মাত্রায় পৌঁছেছিল।২০০৮ সালের সেই আইপিএল-এ নৈশপার্টিতে একসঙ্গে দেখা যেত চিয়ার লিডার ও ক্রিকেটারদের। সেখানেই বিতর্কের আগুন জ্বলেছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার এক চিয়ার লিডার গ্রেম স্মিথের বিরুদ্ধে বড়সড় অভিযোগ এনেছিলেন। আইপিএল-এর মাঝপথেই সেই চিয়ার লিডারকে পত্রপাঠ দেশে ফেরত পাঠিয়ে দেয়া হয়েছিল।তার পর থেকেই সতর্ক সবাই। আগে একই হোটেলে দেখা যেত ক্রিকেটার ও চিয়ার লিডারদের। বোর্ডের সিদ্ধান্তের পরে সব বন্ধ।আইপিএল-এই স্পট ফিক্সিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। বোর্ডের ধারণা, ম্যাচ গড়াপেটার সঙ্গে জড়িত যারা তারা এই নৈশভোজেই ফায়দা লোটে। এই পার্টিতেই মহিলাদের মাধ্যমে ফিক্সাররা ম্যাচ গড়াপেটার প্রস্তাব পাঠাতেন ক্রিকেটারদের। সেসব বন্ধ করার জন্যই বোর্ড কড়া পদক্ষেপ দেয়। নৈশভোজ বন্ধ। ক্রিকেটারদের সঙ্গে চিয়ার লিডারদের মুখ দেখাদেখি বন্ধ।