ইভিএম সুষ্ঠু নির্বাচনের যন্ত্র: সিইসি

ইলেকট্রনিকস ভোটিং মেশিনকে (ইভিএম) একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের যন্ত্র উল্লেখ করে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এর ব্যবহার সম্পর্কে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা বলেছেন, ইভিএম ব্যবহারের ব্যাপারে সব রাজনৈতিক দল ও ভোটাররা যদি তাদের অবস্থান পরিবর্তন করে তাহলে ইভিএম ব্যবহার করা হবে।সিইসি বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিষয়ে বিএনপি কিংবা অন্য কোনো দলের বিরোধিতা নেই। কিন্তু জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি এটা (ইভিএম) চায় না। আমরা যদি দেখাতে পারি এটা অত্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচনের একটি যন্ত্র, তাহলে আমরা আশা করি তারা সম্মত হবে।বৃহস্পতিবার দুপুরে বাউফল উপজেলা পরিষদ মিলনায়নে আয়োজিত স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কার্যক্রম শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সিইসি এ কথা বলেন।এর আগে স্মার্টকার্ড বিতরণ অনুষ্ঠানেও ইভিএম মেশিনের সুফল সম্পর্কে দীর্ঘ বক্তব্য রাখেন তিনি।এ সময় উপস্থিত সংবাদকর্মীরা সেনাবাহিনী মোতায়েন সম্পর্কে জানতে চাইলে সিইসি নুরুল হুদা জানান, গত নির্বাচনে সেনা মোতায়েন হয়েছে। এবার নির্বাচন কমিশন মনে করলে সেনা মোতায়েন হতে পারে। এটা আলাপ-আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।ইকোনমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বাংলাদেশের ৮ ধাপ অবনমন ঘটেছে।গণতন্ত্রের পূর্বশর্ত যেহেতু নির্বাচন- সে ক্ষেত্রে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এই প্রতিবেদন কোনো প্রভাব ফেলবে কিনা জানতে চাইলে সিইসি বলেন, আমি প্রতিবেদনটি পড়িনি, না পড়ে বলা যাবে না। আর কেন প্রভাব পড়বে, কোথায় বিদেশে কী বলল? তাদের দেশের প্রতিবেদনে আমাদের নির্বাচনে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হওয়ার কারণ নেই।